ঈদের সময় ফ্যাশনেবল পাঞ্জাবি

0
1276
ঈদের সময় ফ্যাশনেবল পাঞ্জাবি
5 (100%) 1 vote

পাঞ্জাবি বাংলাদেশ পুরুষদের জন্য ঐতিহ্যবাহী পোষাক। বাংলাদেশে পাঞ্জাবি নকশার সঙ্গে মানিয়ে সুন্দর ফ্যাশনেবল করে তৈরি করে। অনেক ব্র্যান্ডেড কোম্পানি বিভিন্ন শৈলী এবং সূচিকর্ম কাজের সঙ্গে পাঞ্জাবির উপর সুন্দর নকশা করে থাকে। বিশেষভাবে পাঞ্জাবি ঈদের সময় বেশী ফ্যাশনেবল হয়।

মুদ্রিত নকশার সঙ্গে বাংলাদেশি সাদা পাঞ্জাবি খুব ফ্যাশনেবল হয়। পাঞ্জাবির ডিজাইন এবং রঙ বাংলাদেশি জনগণের সহজলভ্যতার উপর নির্ভর করে পরিবর্তিত হতে পারে। বাংলাদেশী পুরুষদের জন্য জাঁকজমকপূর্ণ সূচিকর্মের সাথে লং সুতির পাঞ্জাবি অনেক ফ্যাশনেবল হয়। সুতি ফ্যাশন পাঞ্জাবির খুব সুন্দর ঐতিহ্য আছে আমাদের দেশে।

ফ্যাশন সচেতন প্রতিটি ছেলের চোখ থাকে মার্জিত, গ্রহণযোগ্য ডিজাইনের পাঞ্জাবির প্রতি। এরই মধ্যে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষ্যে অধিকাংশ ছেলের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে মনের মতো পাঞ্জাবি সংগ্রহের জন্য। আবহাওয়া ও ট্রেন্ড উপযোগী ডিজাইন, রঙ ও কাপড়কে কেন্দ্র করে মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে নানা পরিকল্পনা। আর তাই চলতি ফ্যাশন নিয়ে সেজেছে দেশের সেরা ফ্যাশন হাউজগুলো।

ঈদ মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। তাই ঈদ উৎসবে কেনাকাটার ধুম পড়ে যায়। এসব উৎসবে ধনী গরীব সবাই নতুন কিছু পড়তে চায়। আবহাওয়ার সঙ্গে মানানসই বিভিন্ন শেডের পাঞ্জাবিগুলো আনা হয়েছে। পাঞ্জাবি ছাড়া ইদ কল্পনা করা যায় না। ঈদে যে পোশাকই কেনা হোক না কেন সাথে পাঞ্জাবি থাকছেই। অনেকেই আবার সারাদিন কাটিয়ে দেয় পাঞ্জাবি পরে। ঈদে পাঞ্জাবির কাটে অনেক পরিবর্তন আনে ডিজাইনাররা। পাঞ্জাবিতে হাতে, গলায়, বুকে বিভিন্ন ধরনের নকশার কাজ দেখা যায়।আমাদের বাঙালি সংস্কৃতির অন্যতম ধারক হল পাঞ্জাবি। ঈদে তো অবশ্যই যেকোনো উৎসব বা পার্বণে ও পাঞ্জাবির বিকল্প নেই। তাইতো বাঙালির এ আদুরে পোশাকটিকে ঘিরে আগ্রহ আড়ম্বরতা সবসময়ই বেশি। ঈদকে সামনে রেখে আমাদের দেশীয় ফ্যাশন হাউসগুলো বরাবরের মতো সাজিয়েছে পাঞ্জাবির পসরা। পাঞ্জাবি যেন হয়ে উঠেছে ডিজাইনারের সাদা ক্যানভাস। ফ্যাশন হাউসগুলোর পাঞ্জাবির সংগ্রহে থাকছে নতুন নকশা, নতুন রং।

পাঞ্জাবির কথা নতুন করে বলার কিছু নেই। নানা পরিবর্তন হয়েছে। এর কাট আর ছাঁটে। আবার আদি পাঞ্জাবিও রয়েছে। ডিজাইনরা তাদের সৃজনশীলতার উদাহরণ রাখছেন প্রতিনিয়ত। ফলে ছাঁট আর কাটের পাশাপাশি জমিন অলঙ্করণও মাত্রা পাচ্ছে। এমনকি বিভিন্ন সময়ে ঝুল নিয়েও যথেষ্ট নিরীক্ষা হয়েছে। এবারের বৈশাখে সেটা লক্ষ্য করা যাবে। ধুতির সঙ্গে পাঞ্জাবি। ভাবলেই বেশ একটা অভিজাত্যের অনুভব হয়। একসময় বাঙালিরা পড়তেন গিলে করা ধুতি আর পাঞ্জাবি। পাঞ্জাবির পকেটে থাকত কোঁচা। পুরোনো বাংলা ছবি বিশেষত উত্তম কুমারের ছবি দেখলে সেটা স্পষ্ট হবে। আবার ধুতি-পাঞ্জাবি বাঙালির আটপৌরে পোশাকও ছিল।

এবার তরুণদের পাঞ্জাবিতে টিউন ফিটের চল দেখা যাবে। তবে বয়স্ক ব্যক্তিদের জন্য কিছুটা ঢিলেঢালাই থাকছে পাঞ্জাবির কাট। ফ্যাশন হাউস ওটুর স্বত্বাধিকারী জাফর ইকবাল বলেন, মাঝে কয়েক বছর খাটো পাঞ্জাবির চল ছিল। এবার সেটা থাকছে না। এবারের ট্রেন্ড লম্বা কাটের টিউন ফিট পাঞ্জাবি। কাপড়ের ধরন ভিন্ন হলেও যতটা সম্ভব পাতলা রাখা হয়েছে। যাতে বাতাস চলাচলে শরীর সুস্থ থাকে। বিকেল বা সন্ধ্যার দিকটাতে দাওয়াতে গেলে পাঞ্জাবির ওপর একটা প্রিন্স কোট জড়িয়ে নিতে পারবেন। এবারও নানা ধরনের প্রিন্স কোটের চল দেখা যাবে। প্রিন্স কোটে ছিমছাম পাঞ্জাবিও অভিজাত দেখায়।

পাঞ্জাবিতে এবার নীল রঙের খেলা জমবে। বাদলা দিনে ঈদ উৎসব বলে পোশাকেও সেটাকে তুলে এনেছেন ডিজাইনাররা। এ ছাড়া সাদা, অফ হোয়াইট, ছাই, লেবু, হলুদ, বেগুনি, লাল ইত্যাদি রং দেখা যাবে। আড়ংয়ের পাঞ্জাবি বিভাগের দায়িত্বে আছেন সজীব ভট্টাচার্য। তিনি জানান, নানা বয়সের ক্রেতার কথা মাথায় রেখে ঈদের সংগ্রহ সাজাতে হয়। তাই ঈদে ট্র্যাডিশনাল পাঞ্জাবির পাশাপাশি অল্পস্বল্প কারুকাজ করা পাঞ্জাবি থাকছে। বুকের সামনে, গলায় বা হাতা নিচের দিকে নানা নকশা করা হয়েছে অনেক পাঞ্জাবিতে।

fashionable-eid-panjabi-for-man

বোতামের দুই ধারে ও হাতার নিচে অল্প সুতার এমব্রয়ডারি বা হাতের কাজ দেখা যাচ্ছে। নানা ধরনের প্রিন্টের নকশা করা হচ্ছে পাঞ্জাবিতে। আছে টাইডাই করা পাঞ্জাবিও। আর সবটাই ক্রেতাদের আরামের কথা মাথায় রেখে করেছে ফ্যাশন হাউসগুলো। সুতির পাশাপাশি যারা ভারী কাজের পাঞ্জাবি পরতে চান, তাঁদের জন্য আছে সিল্ক, ভয়েল, জামেবার, অ্যান্ডি ইত্যাদি কাপড়ে তৈরি পাঞ্জাবি। পাঞ্জাবির সঙ্গে তরুণেরা অনেকেই জিনস প্যান্ট পরেন। তবে সকালটা পায়জামা পরে থাকলে আরাম পাবেন। আলিগড়ি, চুড়িদার ও ট্রাউজার স্টাইলের পায়জামা থেকে বেছে নিতে পারেন পাঞ্জাবির সঙ্গে মানানসই পায়জামা। পায়জামা পরলে পায়ে দুই ফিতার স্যান্ডেল বা স্যান্ডেল শু পরতে পরামর্শ দিলেন ফ্যাশন বিশেষজ্ঞরা। অনেকে আজকাল মোকাসিন বা লোফার দিয়েও পাঞ্জাবি পরছেন। জিনস প্যান্টের সঙ্গে এমন লুক ভালো দেখাবে।

ফ্যাশন হাউস লুবনান, ওটু, আর্টিস্টি, ইনফিনিটি, লা রিভ, আড়ং, যাত্রা, ইয়েলো, স্মার্টেক্স, মনসুন রেইন, ক্যাটস আই, একস্ট্যাসি, স্টুডিও এমদাদ, মায়াসীর, কুমুদিনী, কারুপল্লী, ব্যাং, অন্যমেলা, প্লাস পয়েন্ট, নগরদোলা, দেশি দশের সব দোকান, স্বদেশী, আজিজ সুপার মার্কেট, নিউমার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড, পল্টন, গুলিস্তান, পিংক সিটি, প্লাজা এ আর, মৌচাক মার্কেটসহ প্রায় সব মার্কেটেই মিলবে পাঞ্জাবি। তবে ফ্যাশন হাউসগুলোর পাশাপাশি নগরীতে বেশ কিছু মার্কেট রয়েছে, সেগুলোতে বিভিন্ন রকম নিত্যনতুন ডিজাইনের পাঞ্জাবি পাওয়া যায়।

বাঙালির ফ্যাশনে পাঞ্জাবির অবস্থান বেশ দৃঢ়। তাই পাঞ্জাবিকে নিয়ে ডিজাইনরাদের ঘষামাজা সবসময়ই চলে। বর্তমান ছেলেদের ফ্যাশন সচেতনতার কথা মাথাই রেখেই ডিজাইনাররা অনেক জাঁকজমকপূর্ণ পাঞ্জাবি বাজারে এনেছে।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY