একজন ভালো বসের যে গুণাবলী থাকা আবশ্যক

0
1094
একজন ভালো বসের যে গুণাবলী থাকা আবশ্যক
5 (100%) 2 votes

বসের কাজ কি শুধু হুকুম করা? বস তো বন্ধুর মতো ও হতে পারেন, হতে পারেন অভিভাবকের মতো। অনেকে ভাবেন ঝাড়ি দিয়ে কাজ আদায় করাই বসের কাজ। কিন্তু কর্পরেট ঘরানার এই যুগে বসদের কাজের পরিধি যেমন বেড়েছে, তেমনি বেড়েছে কাজের কৌশল। বসরাই এখন অধীনস্তদের সবচেয়ে কাছের বন্ধু। অফিসের কাজ তো বটেই, এর বাইরেও ব্যক্তিগত সম্পর্কেও এগিয়ে থাকছেন বসেরা। আর তাই তো প্রতিষ্ঠানের চেয়ে বসের কাছেই বেশি দায়বদ্ধ থাকেন অধীনস্তরা। নিজেকে কখনো প্রশ্ন করেছেন যে, আমি কি আদর্শ বস? সমস্যা হলো, কিভাবে বুঝবেন আপনি ভালো বস কি না? এটি বিচারে কোনো মানদণ্ড কি আছে? বিশেষজ্ঞগন জানিয়েছেন বেশ কয়েকটি লক্ষণের কথা। এগুলোর উপস্থিতিতে বুঝে নিতে পারেন যে, আপনি একজন ভালো বস।

  • অসম্ভবকে সম্ভব করা
    বস মানে নেতা। আর নেতাদের কাজই হচ্ছে আগ বাড়িয়ে দায়িত্ব নেওয়া এবং সেটা পূরণ করা। বস কে হতে হবে দূরদর্শী। সবাই যেটা অসম্ভব বলবেন, বসকে সেটা সম্ভব করতে হবে। আর সে জন্যই তাঁর থাকতে হবে নিজের ওপর প্রচণ্ড আত্মবিশ্বাস এবং নিজের টিম সম্পর্কে স্বচ্ছ ধারণা। তাহলেই কেবল অসম্ভবকে সম্ভব করে দেখিয়ে দেওয়া সম্ভব।
  • সুযোগ এবং সম্ভাবনা দেখার ক্ষমতা
    হীরের টুকরোকে কাচ ভেবে ভুল করেন না যোগ্য বসরা। তাঁরা ঠিকঠাক জানেন কাকে দিয়ে কী করানো সম্ভব। আর সে কারণেই সম্ভাবনাময় অধীনস্তদের যোগ্যতার মূল্যায়ন করাই ভালো বসের কাজ। সেই সঙ্গে কাজের সুযোগ তৈরি করা এবং কর্মীর সম্ভাবনাকে বিকশিত করার ব্যবস্থা করে দেওয়াই ভালো বসের কাজ। কারণ কর্মীদের কেউ ভালো করলে সুনাম হবে বসেরই।
  • আবেগপ্রবণ নয়
    ভালো বসরা সব সময়ই পেশাদার। কাজের ক্ষেত্রে তাঁরা কখনো আবেগকে টেনে আনেন না। আবেগ দিয়ে বিচার করেন না বা সিদ্ধান্ত নেন না। ভালো বসরা কখনোই সবার সামনে নিজেদের আবেগ প্রকাশ করবেন না। তবে সবকিছুর পরেও তাঁরা মানুষ। কর্মীদের ভালো কাজের প্রশংসা যেমন করতে হয় তেমনি খারাপটাও ধরিয়ে দিতে হয়। কিন্তু সেই প্রশংসা বা শাসনও তাঁরা জায়গা এবং মানুষ বুঝে করেন।
  • বিপদে ফেলেন না, বিপদে পড়েন
    যেখানে বিপদের গন্ধ পান, সেখানে কখনোই কর্মীদের ঠেলে দেন না ভালো বসরা। ঝুঁকি বা বিপদের সম্ভাবনা যেখানে রয়েছে সেখানে বসরাই আগ বাড়িয়ে দায়িত্ব বুঝে নেন এবং কর্মীদের নিরাপদে রাখেন। একজন ভালো বস তাঁর কর্মীকে তখনই কোনো দায়িত্ব দেবেন যখন তিনি ভালোমতো জানবেন সেই কাজটি করতে গিয়ে তাঁর কর্মীটির ক্যারিয়ার বা ব্যক্তিগত জীবনের কোনো ক্ষতির আশঙ্কা নেই। আর যদি আশঙ্কা থাকে তাহলে তার দায়িত্ব তিনি নিজের কাঁধেই তুলে নেবেন।
  • প্রতিদিন এগিয়ে যাওয়া
    ভালো বসদের প্রধান গুণ হচ্ছে ধারাবাহিকতা। তাঁরা প্রতিদিন একটু একটু করে এগিয়ে যান। প্রতিদিন আগের দিনের চেয়ে ভালো করার চেষ্টা একজন ভালো বসের মধ্যে যেমন থাকে, সেভাবে তিনি তারা কর্মীদেরও এগিয়ে নেন। ভালো বস সামনে থাকলে কর্মীরাও নিজেদের সবটুকু দিয়ে চেষ্টা করেন সেরা কাজটি দেওয়ার এবং টিমকে এগিয়ে নেওয়ার।
  • কর্তৃত্ব খাটান না
    শুধু পদবি পেলেই বস হওয়া যায় না। কর্মীরা যদি মন থেকে নেতা হিসেবে মেনে না নেন, যে কোনো বসের পক্ষেই কাজ করা কঠিন। তাই ভালো বসদের গুণ হচ্ছে তাঁরা কখনো কর্তৃত্ব খাটান না। নিজেদের প্রভাব-প্রতিপত্তি বোঝানোর জন্য কখনো অন্যায় আচরণ করেন না কর্মীদের সঙ্গে। ভালো বসদের কাছে কর্মীরাই আসেন সিদ্ধান্ত এবং নির্দেশনার জন্য। সেই আস্থা এবং নেতৃত্বের জায়গাটি বসদের নিজেদের যোগ্যতায় তৈরি করে নিতে হয়।
  • কর্মীদের খেয়াল রাখা
    বসদের কাজ একটাই। প্রতিষ্ঠানের উন্নতি, নিজের লক্ষ্য পূরণ করা। এটুকু করলেই অফিসে তাঁদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়। কিন্তু ভালো বসরা এর থেকে আরেকটু এগিয়ে। কর্মীদের যে কোনো প্রয়োজনে তাঁরা এগিয়ে আসেন। চাকরি বদল, বেতন বাড়ানো বা পারিবারিক ঝামেলা সবকিছু থেকে কর্মীদের বাঁচিয়ে রাখেন একজন ভালো বস। আর তাই প্রতিষ্ঠান বদলালেও ভালো বসদের সঙ্গে কর্মীদের সম্পর্কের কোনো ক্ষতি হয় না।
  • কথায় নয় কাজে বড়
    অনেকেই মনে করেন চাপার জোরে ভালো বস হওয়া সম্ভব। কিন্তু সত্যিকারের ভালো বসরা কথা নয় কাজ পাগল। তাঁদের কাজই তাঁদের পক্ষে কথা বলে। ভালো বসরা সব সময় নিজেদের আগের কাজকে ছাড়িয়ে যেতে চায়। এবং সে কারণে খুব সহজেই তারা টিম তৈরি করতে পারে। টিমের মধ্যে ভাঙাগড়া থাকবেই কিন্তু ভালো বসেরা যে কোনো পরিস্থিতিকে নিজের টিমের মধ্যে সমন্বয় করে চলার এবং টিমকে উজ্জীবিত করার ক্ষমতা রাখেন।
  • হাস্যরস
    বস মানেই গুরুগম্ভীর একজন মানুষ নন। ভালো বসেরা সবসময় সিরিয়াস হয়ে থাকতে পছন্দ করেন না। তারা কাজের মধ্যেই হাসিঠাট্টা করেন, গল্পগুজব করেন, কর্মীদের সঙ্গে চা খেতে বেরিয়ে যান, বৃষ্টির দিনে নিজের গাড়িতে কর্মীদের বাসায় পৌঁছে দেন। এই ছোটখাট ব্যাপারগুলো কর্মীদের কাছে অনেক বড়। তারা এ ধরণের বসদের জন্যই নিজের কাজটা ঠিকঠাক করে থাকে।
  • গ্রহণযোগ্যতা
    ভালো বস হয়ে উঠতে হলে গ্রহণযোগ্যতা থাকতে হয়। সেটা যেমন নিজের অফিসে তেমনি কাজের ক্ষেত্রেও। আর সে কারণেই কর্মস্থল পরিবর্তনের ক্ষেত্রে ভালো বসেরা কখনো বিপদে পড়েন না। তারা যে কোন সময় যে কোন পরিস্থিতিতে মানিয়ে নিতে সক্ষম। সে কারণেই তারা প্রতিষ্ঠানের প্রতি নয় বরং প্রতিষ্ঠানই তাদের উপর নির্ভরশীল থাকে। ভালো বসেরা কর্মীদের জন্য নতুন চাকরি বা নতুন প্রতিষ্ঠানে সুযোগ তৈরি করে কারণ নতুন প্রতিষ্ঠানে যাওয়ার মত গ্রহণযোগ্যতা ভালো বসদের থাকে।
  • সমব্যথী
    ভালো বস তিনিই যিনি কাজের আগে মানবিক বিষয়কে স্থান দেন। কর্মক্ষেত্রে জীবনটা চলে আসলে তিনি তা বুঝতে পারেন। কর্মীদের খারাপ সময়ে আপনি পাশে থাকার চেষ্টা করেন। মানসিকভাবে ভেঙে পড়া কর্মীদের আত্মবিশ্বাসী করে তোলেন।
  • কর্মীদের নিজেদের মতো করে কাজের সুযোগ দেন
    যাদের দেখে-শুনে রাখেন তারা আপনার সঙ্গে নিজেদের চিন্তাধারা শেয়ার করতে অস্বস্তি বোধ করেন না। তারা আপনার কাছ থেকে সাহায্য চান। এ গুণ যেকোনো মানুষকে ভালো বস হিসাবে তুলে ধরে। বসের এই গুণ কর্মীদের উৎপাদনশীলতা দারুণভাবে বৃদ্ধি করে।
  • manager-1

  • আত্মসচেতন
    সেরা বস তারাই যারা সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণের সময় আত্মসচেতন হয়ে ওঠেন। এটি যেকোনো সফল নেতার অনবদ্য গুণ। যেকোনো মানুষকে আত্মসচেতন করে তুলতেও ভূমিকা রাখেন বস।
  • দলেরই একজন
    কোনো ক্লায়েন্ট বা ক্রেতা অফিসে এসে হয়তো বুঝতেই পারেন না আপনি বস। কারণ আপনার আচরণ বিভাগের অন্যান্য কর্মীর মতোই। আপনি তাদের সঙ্গে মিশে থাকেন।
  • কর্মীদের উন্নতিতে কাজ করেন
    ভালো বস সব সময় কর্মীদের মধ্য থেকে পুরোটুকু বের করে আনেন। এমনকি তিনি তাদের মাঝে কর্মোদ্যম ছড়িয়ে দেন এবং তাদের উন্নতিসাধনে নানা পরামর্শ দিয়ে থাকেন।
  • সহজবোধ্য
    ভালো বা খারাপ সব ধরনের কর্মীদের সহায়তা দিতে প্রস্তুত আপনি। খুব বেশি বন্ধুসুলভ চাকচিক্য নিয়ে চলেন না আপনি।
  • প্রায়ই ক্ষমাহীন
    প্রায় সময়ই খুব কঠিন পরিস্থিতি আসে। তখন কর্মীদের যোগ্যতা বড় প্রশ্ন হয়ে দেখা দেয়। এমন অনেক ক্ষেত্রেই আপনি ক্ষমাহীন হয়ে ওঠেন। অর্থাৎ, কর্মী তার ভেতরের পুরোটা ঢেলে দিয়ে নিজেকে প্রমাণ করেন এবং কাজ উদ্ধার হয়।
  • চরম বিষয় এড়িয়ে চলেন
    অধিকাংশ বস তার অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাস কিংবা নিরাপত্তাহীনতা থেকে কাজ করে যান। তাদের ভয়, কর্মীরা কথা শুনবে না। সেরা বস হিসাবে আপনি নিজের দুর্বলতা সম্পর্কে সচেতন। এ নিয়ে আপনার মধ্যে কোনো গোপনীয়তা কাজ করে না।
  • অহংকার ত্যাগ করতে পারেন
    ভালো বস হিসাবে আপনি সহজেই নিজের অহংবোধ ত্যাগ করতে পারেন। তারা সহজেই নিজের চেয়ে জ্ঞানী ও অভিজ্ঞ কর্মীকে নিয়োগ দিতে অস্বস্তিবোধ করেন না। তিনি সুদক্ষ কর্মীবাহিনী তৈরি করতে বদ্ধপরিকর।
  • স্বচ্ছ
    আদর্শ বস সব বিষয়ে স্বচ্ছতা ধরে রাখেন। কর্মক্ষেত্রে স্বচ্ছতা প্রদর্শনের মাধ্যমে আপনি কর্মীদের সুখের মাত্রা বৃদ্ধি করেন। যে সকল নেতা বা বস স্বচ্ছতা দেখান, তারা কর্মীদের শ্রদ্ধার মানুষ হয়ে ওঠেন।
  • অনুপ্রেরণাদায়ক
    শুধুমাত্র কাজ গুছিয়ে এনে লক্ষ্য পূরণই ভালো বসের কাজ নয়। আদর্শ বস হিসাবে আপনি কর্মীদের অনুপ্রেরণা প্রদান করেন। কাজ বা কথা বা ইমেইলের মাধ্যমে আপনি নিমিষেই কর্মীদের উদ্যমী করে তোলেন।
  • কর্মীদের প্রশংসা করেন
    অনেক বস আছে যারা কর্মীদের কোনো ভালো কাজের প্রশংসাই করতে চান না। এমনকি অন্যের কৃতিত্ব নিজের বলে চালিয়ে নেন। কিন্তু আদর্শ বস হিসাবে আপনি কর্মীদের ভালো কাজের প্রশংসা করতে কার্পণ্য করেন না।
  • কাঠামো তৈরি করেন
    প্রত্যেক কর্মীর বিষয়ে আপনার ধারণা পরিষ্কার। সব বিষয়ে আপনার মনে একটা কাঠামো তৈরি করা আছে। আপনি তাদের নতুন কাজ দেন এবং তা উদ্ধারে কর্মপরিকল্পনা তৈরি করে দেন।
  • যোগাযোগে দক্ষ
    কর্মীদের সঙ্গে আন্তযোগাযোগ স্থাপনে আপনি দক্ষ। যার যা প্রয়োজন তা মেটাতে আপনি সহজে তাদের মনের কথা বের করে আনতে পারেন। কর্মীদের সত্যিকার সমস্যা ভালো বসের কাছে সবচেয়ে গুরুত্ব পায়।
  • কারিশমা আছে
    ভালো বস সহজেই কর্মীর ছবিটা এঁকে ফেলতে পারেন। কারিশমার মাধ্যমে কর্মীদের সঙ্গে নিজের সম্পর্ককে চূড়ায় নিয়ে যেতে সক্ষম আপনি। কর্মীদের প্রতি আগ্রহ, মনোযোগ এবং ভালো শ্রোতার বৈশিষ্ট্য ফুটিয়ে তোলার মাধ্যমে আপনি সহজেই তাদের কাছাকাছি থাকতে পারেন।
  • সহযোগিতার মূল্যায়ন করেন
    ভালো বস প্রয়োজনে কর্মীদের সহযোগিতা নিয়ে থাকেন। এর বিনিময়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে দ্বিধা নেই তাদের। তারা কর্মীদের থেকে খুব দূরে দূরে থাকেন না।
Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY