একজন যোগ্য কর্মীর মাঝে কি কি গুণ থাকা আবশ্যক

0
966
একজন যোগ্য কর্মীর মাঝে কি কি গুণ থাকা আবশ্যক
5 (100%) 1 vote

কর্মচারীর সবচাইতে ভালো গুণ কী কী? খুব ভালো পড়াশোনা অথবা লম্বা সময় কাজের অভিজ্ঞতা? এর চেয়েও আরও অনেক কিছু আছে যা একজন কর্মীর মাঝে থাকলে সে ভালো কর্মচারী হতে পারবে। এর চাইতেও বেশি জরুরী হলো নিজের সহকর্মীদের ওপর আস্থা রাখা এবং আপনি যে কাজটি করতে পারবেন, তার ওপর বিশ্বাস রাখা। আপনার সহকর্মীরা যদি হয়ে থাকেন খুব প্রতিভাবান অথচ তাদের ওপরে মোটেই আস্থা রাখা না যায়, তাহলে বেশি সময় তাদের সাথে কাজ করতে পারবেন না আপনি। একজন যোগ্য কর্মীর মাঝে কি কি গুণ থাকা আবশ্যক তা নিম্নে তুলে ধরা হলঃ

    কাঠামো এবং স্বচ্ছতা

  • টিমে কাজ করার সময়ে প্রতিটি কর্মচারীর একটি করে নির্দিষ্ট অবস্থান থাকবে, টিমের একটি দৃঢ় কাঠামো থাকবে, তাদের লক্ষ্য এবং পরিকল্পনায় থাকবে স্বচ্ছতা।
  • খোলা মনের অধিকারী হোন

  • দুর্বলতা, ভুলত্রুটি, বা উন্নতির কোনো সুযোগের উল্লেখ থাকলে রক্ষণশীল হওয়া থেকে বিরত থাকুন। বস্তুনিষ্ঠভাবে আপনার কাজের মূল্যায়ন করুন এবং সবসময় মনে রাখবেন প্রতিষ্ঠান ও কর্মচারী উভয়ের কল্যাণের কথাই আপনার মালিকের মাথায় রয়েছে। মনে রাখবেন, প্রত্যেকের কাজেরই মূল্যায়ন করা হবে এবং এটি আপনার ক্যারিয়ারের উন্নতি সম্পর্কে ধারণা দেবে।
  • বস্তুনিষ্ঠ হোন

  • কী বলা হচ্ছে তা ভালো করে শুনুন। স্পষ্ট ধারণা পেতে প্রয়োজনে প্রশ্ন করুন। যদি কেবল সাধারণ আচরণ, যেমন ধরুন, উদাসীনতার কথা বলা হয়, তখন সুপারভাইজারের চিন্তাধারা বুঝতে ভদ্রতার সাথে একটি উদাহরণ দিয়ে বুঝিয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করুন।
  • সততা বজায় রাখুন

  • আপনি যদি কাজের কোনো দিক সম্পর্কে না বোঝেন তবে সেটি বুঝিয়ে বলুন। মুল্যায়নের পদ্ধতি নিয়ে যদি আপনার কোনো আপত্তি থাকে তবে তা জানিয়ে দিন। কোনো বিষয় নিয়ে সমস্যা থাকলে তা চেপে রেখে মনের মধ্যে হতাশা না বাড়িয়ে সরাসরি খোলামেলাভাবে বলে ফেলা ভালো। আপনার হতাশার কারণে আপনি নিশ্চয়ই পরবর্তীতে কারও সাথে রাগারাগি করতে বা বিষণ্ণ হতে চাইবেন না।
  • উন্নতির জন্য পরামর্শ গ্রহন করুন

  • যদি কাজের কর্মপন্থায় পরিবর্তন আনতে চান তবে সেটি ভালো করে শোনা এবং সেই মত কাজ করা উচিৎ, যতক্ষণ পর্যন্ত না আপনি তাতে কোনো দুর্বলতা দেখতে পাচ্ছেন বা এর চেয়ে ভালো কোনো উপায় খুঁজে পাচ্ছেন। অন্ততপক্ষে তাঁর পরামর্শ অনুযায়ী চেষ্টা করার মানসিকতা রাখুন এবং দেখুন আসলেই তাতে কাজ হয় কিনা। কারও বিরোধিতা করা বা তর্ক করা থেকে বিরত থাকুন, যদিও ভদ্রভাবে কিছু জিজ্ঞেস করা বা দ্বিমত পোষণ করা যেতে পারে।
  • উন্নতির জন্য পরামর্শ দিন

  • প্রো-অ্যাকটিভ হন এবং কোন কিছুর সমালোচনা হলে সেখানে আপনি কিভাবে কাজটি পূর্বের চেয়ে আরও ভালোভাবে করতে পারতেন তা বলুন। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আপনার কাজের উন্নতির সদিচ্ছা দেখে নিশ্চয়ই আপনার প্রশংসা করবেন এবং কাজগুলো ভিন্নভাবে করার জন্য আপনার ধারণাগুলো কাজে লাগানোর কথা ভেবে দেখবেন। অন্ততপক্ষে এটা প্রমাণ করে যে আপনি আপনার পদে দায়িত্বশীল এবং ভালো কাজ করতে চান।
  • employee-1

    নম্রভাবে প্রশংসা গ্রহণ করুন

  • যখন আপনার কোনো ইতিবাচক গুণ বা অর্জনের প্রশংসা করেন তখন কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন, কিন্তু বড়াই করবেন না বা অহংকারী মনোভাব দেখাবেন না। প্রতিষ্ঠানের সাথে কাজ করার সুযোগ দেওয়ার জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করুন এবং এর প্রতিক্রিয়া দেখুন যা আপনাকে আরও ভালো কর্মকর্তা হতে সহায়তা করবে। অন্যান্য যারা আপনার কাজে সহযোগিতা করেছে তাঁদের সাথে সাফল্যের কৃতিত্ব ভাগ করে নিন।
  • নতুন নতুন আরও সুযোগ দেওয়ার জন্য অনুরোধ করুন

  • আপনি যদি আপনার বর্তমান পদে ভালো কাজ করে থাকেন তবে আপনি ভবিষ্যতে অন্য কোনো পদ খালি হলে সেখানে কাজ করার কথা মাথায় রাখবেন। এটি আপনার দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে যা আপনাকে প্রতিষ্ঠানের আরও উচ্চপদে কাজ করার মতো যোগ্য করে গড়ে তুলবে। ইচ্ছা থাকলে, প্রতিষ্ঠানে ব্যবস্থাপক পদে নিয়োগের জন্য কী ধরণের যোগ্যতা প্রয়োজন তা জানতে চান, বা বেতন বৃদ্ধির জন্য কী কী বিষয়ের দিকে খেয়াল রাখতে হবে তা জেনে নিন।
  • দায়িত্বশীলতা

  • একজন কর্মীর শুধু অফিসের প্রতি এবং তার কাজের প্রতি নয়, প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মকর্তা-কর্মচারীর প্রতি দায়িত্বশীল মনোভাবের হন। মনে রাখতে হবে প্রতিষ্ঠানের যেকোনো ভালো বিষয়ের জন্য আপনি যেমন দায়িত্ব নেন, তেমনি যেকোনো ভুলের জন্যও দায়িত্ব নেয়া উচিত।
  • সম্মান প্রদর্শন

  • অন্যকে সবসময় সম্মান দেখানো যোগ্য কর্মীর হওয়ার একটা অন্যতম চিহ্ন। মানবিকতার একটা ধারায় পড়ে এ গুণটি। ছোট বড় সকল কর্মসঙ্গীকে সম্মান দেখানো উচিত। এতে তারাও এ আচরণ দেখাবে।

ইউনিভার্সিটি অফ নটর ডেমের বিজনেস স্কুলের আরেকটি গবেষণায় শক্ত হয় এই ফলাফল। তারা ছয়টি কোম্পানি নিয়ে গবেষণা করে এবং দেখে, কর্মচারীদের মাঝে একে অন্যকে সাহায্য করার মনোভাব থাকলে তারাই ভালো করে। অর্থাৎ শুধু নিজের কাজের প্রতি মনোযোগ দিলে খুব বেশি লাভ হয় না।

সম্প্রতি গুগল একটি গবেষণা করে যা থেকেও এই ফলাফল পাওয়া যায়। গত দুই বছরে ২০০ জনেরও বেশি গুগল কর্মচারীর ইন্টারভিউ, এবং এর পাশাপাশি বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য এবং দক্ষতার এনালাইসিস ছিলো এই গবেষণায়। দেখা যায়, একজন মানুষ সবচাইতে ভালো কাজ করতে পারে যখন তারা সহকর্মীদের ওপর আস্থা রাখতে পারে এবং ঝুঁকি নিয়েও নিরাপদ থাকতে পারবে বলে ধরে নেয়, একে অপরের ওপর নির্ভর করে এবং নিজেদের টিমের লক্ষ্য সম্পর্কে তাদের ভালো ধারণা থাকে।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY