একটি সফল ই-কমার্স ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠিত করার উপায়

0
618
একটি সফল ই-কমার্স ব্র্যান্ড প্রতিষ্ঠিত করার উপায়
5 (100%) 2 votes

পৃথিবীটা এখন আধুনিকতায় মোড়ানো। মানুষের রুচি, কথাবার্তা আর চালচলনে এসেছে বিপুল পরিবর্তন। শুধুমাত্র কিছু নির্দিষ্ট ক্ষেত্রে নয়, পরিবর্তন এসেছে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই। আর এই পরিবর্তনের বিরাট একটা অংশ এসেছে ইন্টারনেট নামক এক জাদুর কাঠিতে ভর করে। যোগাযোগ ব্যাবস্থা থেকে শুরু করে যেকোনো ক্ষেত্রেই বেড়েছে ইন্টারনেট সেই সাথে এটাকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে কোটি কোটি ডলারের ইকমার্স ব্যবসা।

প্রচারনা চালানো

আপনার ইকমার্স ওয়েবসাইটটি চালু করার আগেই একটু জোরেশোরে প্রচারনা চালানোর চেষ্টা করুন। ইকমার্স ওয়েবসাইটটির ফিচার গুলো কেমন হবে, কেন অন্যদের থেকে আলাদা তা তুলে ধরার চেষ্টা করুন। প্রচারনার জন্য বাজেটের একটা অংশ রাখুন। কারন প্রচারেই প্রসার। প্রচারনার অংশ হিসেবে ফেসবুক প্রোমোট, বিলবোর্ড এডভার্টাইজিং ইত্যাদি রাখতে পারেন। তাছাড়া ইকমার্স ওয়েবসাইটটি উদ্বোধন উপলক্ষ্যে রাখতে পারেন বিশেষ ছাড় এবং উপহার সামগ্রীও।

বিনিয়োগ নির্ধারণ

ইকমার্স ব্যাবসার জন্য কি পরিমান বিনিয়োগ প্রয়োজন, আপনি কি কতটুকু বিনিয়োগ করবেন, সম্পূর্ণ অর্থ আপনার কাছে না থাকলে বাকিটুকু কি ভাবে ম্যানেজ করবেন, এই বিষয়গুলো আগেই হিসাব করুন।

আকর্ষণীয় নাম নির্ধারণ করুন

আপনি আপনার সাইটের একটি সুন্দর অর্থবহ ও যতোটা পারা যায় ছোট একটি নাম নির্বাচন করুন। এই নাম দিয়েই আপনি যেমন ফ্যান পেইজ খুলবেন আবার এই নাম দিয়েই ডোমেইন মেন রেজেস্ট্রেশন করতে পারেন। কারন নাম শুনেই অনেক সাইটের পন্য ও কাজ সম্পর্কে জানা যায়। যেমন নাটোরের কাচা গোল্লা ডট কম সাইটের নাম শুনেই কাজ সম্পর্কে পরিস্কার ধারনা পাওয়া যায়।

ফেসবুক দিয়ে শুরু করুন

আপনি যদি শুরুতেই খরচ করতে না চান বা মার্কেট যাচাই করে পদক্ষেপ নিতে চান? তাহলে আপনার জন্য ফেইসবুক হতে পারে বিজনেস শুরুর অন্যতম মাধ্যম। আপনি ফেইসবুকে একটি ফ্যান পেইজ করেই সুন্দর ভাবে শুরু করতে পারেন। এর ফলে আপনার কোন পন্য বেশি বিক্রি হচ্ছে আর কোনটি হচ্ছে না বা হবে না তা বুঝতে পারবেন। বর্তমানের অনেক ইকমার্স এভাবেই উঠে এসেছে এদের মধ্যে অন্যতম বগুড়ার দই ডট কম উল্যেখ যোগ্য। আপনার পন্যের সুন্দর ছবি ও বিস্তারিত বর্ননা দিয়ে ফ্যান পেইজে শেয়ার করলে খুব সহজেই আপনার পন্য অন্যের নজরে আসবে। এছাড়াও সবাই এখানে মন্তব্যের মাধ্যমে আপনার পন্যের দোষ ত্রুটি তুলে ধরতে পারে। এতে আপনি গ্রাহকের চাহিদা পরিস্কার ভাবে জানতে পারবেন।

ডোমেইন নেম

একটা ইকমার্স ওয়েবসাইটের অন্যতম সৌন্দর্য হচ্ছে একটি সুন্দর ডোমেইন নেম। আপনার ইকমার্স ওয়েবসাইটের জন্য একটি সুন্দর এবং ইকমার্স রিলেটেড নাম সিলেক্ট করুন। যেমন ইকমার্সের জন্য আপনি যদি চিন্তা করেন অামি-তুমি-সে-ডটকম নাম রাখবেন তাহলে তা মানানসই হবে না, কেউ বুঝবেও না এটা কি ওয়েবসাইট। কিন্তু যদি ইবাজারডটকম রাখেন তবে সবাই বুঝবে এটি কিসের ওয়েবসাইট।

পেমেন্ট অপশন নির্ধারন

সাইট তৈরীর কাজে হাত দেওয়ার আগে নির্ধারন করুন পেমেন্ট অপশন হিসেবে কোন পেমেন্ট গেটওয়ে গুলো রাখবেন। মানুষ কোন পেমেন্ট অপশন ব্যাবহারে স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করে তা বিবেচনা করে পেমেন্ট অপশন নির্ধারন করুন। পেমেন্ট অপশন হিসেবে ব্যাংক ট্রান্সফার, মোবাইল ব্যাকিং ব্যবস্থা বিকাশ, পেজা, মানিবুকার রাখতে পারেন। তবে উপরের সবগুলো রাখতে হবে এমন না কারন কাস্টোমারের সেটিসফিকশন যেমন দরকারী তেমন নিজের সুবিধা অনুযায়ী কাজ করতে পারাটাও দরকারি।

প্রোগামিং ল্যাঙ্গুয়েজ

কোন স্ক্রিপ্ট দিয়ে তৈ্রি করবেন অথবা কোন প্রোগামিং ল্যাঙ্গুয়েজ এ তৈরি করবেন তা আগেই নির্ধারন করুন। নিজের নতুন স্ক্রিপ্ট দিয়ে ইকমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করতে হবে এমন নয়। বিভিন্ন সিএমএস আছে যেগুলো ফ্রী তে পাওয়া যায় আবার অল্প টাকায় কিনে ব্যাবহার করা যায়। তবে ফ্রী আর পেইড যেকোনো স্ক্রিপ্টকেই নিজ থেকে মোডিফাই করতে হবে কারন স্ক্রিপ্টের পেমেন্ট অপশন আর আপনার নির্ধারিত পেমেন্ট অপশন এক নাও হতে পারে।

ভালো মানের হোস্টিং

যেকোন ওয়েবসাইটের জন্য ভাল মানের হোস্টিং দরকার আর তা যদি হয় ইকমার্স ওয়েবসাইটের জন্য তাহলে তো কথাই নেই। তাই হোস্টিং কেনার ক্ষেত্রে যথেষ্ট সচেতন হতে হবে আপনাকে। ইকমার্স ওয়েবসাইট চালুর প্রথম দিকে ভালো শেয়ার্ড বা বিজনেস ক্লাস হোস্টিং ভাল হবে তবে সাইটের ট্রাফিক বাড়লে ভিপিএস বা ডেডিকেটেড এ মাইগ্রেট করাই উত্তম হবে।

ইউজার ফ্রেন্ডলী ইন্টারফেস

এটা নিঃসন্দেহে বলা যায় যে ইকমার্স ওয়েবসাইটের জন্য একটা ইউজার ফ্রেন্ডলী ইন্টারফেস সবচেয়ে দরকারী। তাই সাইটের ডিজাইন করার ক্ষেত্রে যতটা সম্ভব ইউজার ফ্রেন্ডলী করে তৈরি করার চেষ্টা করুন। সেই সাথে আপনার ওয়ব সাইটটি সার্চইঞ্জিনে দ্রুত খুঁজে পাওয়ার জন্য করতে হবে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন বা এসইও এর কাজও।

দিন যত যাচ্ছে ততই অনলাইনে কেনাকাটার পরিমান বৃ্দ্ধি পাচ্ছে। বিশ্বের অন্যান্য দেশে অনলাইন শপিং ইতিমধ্যেই জনপ্রিয়তা পেয়েছে। বাংলাদেশে অনলাইনে কেনাকাটা কিছু শ্রেনীর মানুষদের মাঝে সীমাবদ্ধ থাকলেও অচিরেই এটি যে জনপ্রিয় হতে যাচ্ছে তা নিঃসন্দেহে বলা যায়, কারন প্রতিনিয়তই ইন্টারনেট ব্যাবহারকারীর সংখ্যা বাড়ছে। আর তাই দিন দিন ইকমার্স সাইটগুলোর জনপ্রিয়তাও বাড়ছে। ইকমার্স বা ই-বিজনেস শুরু করার পূর্বে অবশ্যই সময় নিয়ে বিজনেস মডেল তৈরি করুন। উল্লেখিত উপাদান ছাড়াও আরো বেশ কিছু উপাদান রয়েছে যেগুলো আপনি আপনার বিজনেস মডেলের সাথে যুক্ত করতে পারেন। একটু সার্চ করলেই এই বিষয়ে আরো অনেক রিসোর্স পেয়ে যাবেন। প্রয়োজনে আভিজ্ঞ কারো পরামর্শ গ্রহণ করুন।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY