কিভাবে আপনি একটি পন্যের উদ্ভাবন করবেন?

0
542
কিভাবে আপনি একটি পন্যের উদ্ভাবন করবেন?
5 (100%) 1 vote

আপনি কি কোন জীবন পরিবর্তনকারী পণ্য উদ্ভাবন করার চিন্তা করছেন? আর অপেক্ষা করবেন না! আপনি নিজে কিভাবে একটি পন্যের উদ্ভাবন করবেন এবং বাজারে এটি কিভাবে সবার সামনে আনবেন তার জন্য কিছু পদক্ষেপ নিন।

শুরুটা হবে আপনার জন্য অনেক কঠিন এবং অনেক পরিশ্রমের ব্যাপার। কিন্তু আপনি যদি সঠিক প্লান এবং সঠিকভাবে আপনার পরিশ্রমকে কাজে লাগাতে পারেন তাহলে আপনি সাফল্য দেখবেন।

ধাপ-১ আপনার পণ্যটি কি হবে ভাবুন

*চিন্তা ভাবনা করুন
– এমন একটি পন্যের কথা চিন্তা করুন যা সম্পর্কে সবাই জানে এবং আপনি যে এলাকায় পণ্যটি নিয়ে ব্যবসা করতে চাচ্ছেন সেখানে সবাই পণ্যটিকে দরকারি মনে করে। একটি পন্যের ক্রয় করা থেকে শুরু করে বিক্রয় করা পর্যন্ত সবটাই নিয়ে আপনাকে চিন্তা ভাবনা শুরু করতে হবে। অন্যথায় আপনার কাছে অনেক ভালো ধারনা আছে কিন্তু তা আপনি কার্যকর করতে পারছেন না, তা ফলপ্রসূ হবে না। তাই আপনার পন্য সম্পর্কে প্রথমেই ধারনা থাকতে হবে আপনি পণ্যটি নিয়ে যা চিন্তা ভাবনা করছেন তা বাস্তাবায়ন করতে পারবেন কিনা।
– প্রথমেই একটি তালিকা তৈরি করুন যেখানে সমগ্র পন্যের কথা উল্লেখ থাকবে এবং সেই তালিকা অনুযায়ী আপনার পন্যের কার্যক্রম নিয়মিত ভাবে শুরু করতে পারেন।
– আপনি যে প্রাতমিকভাবে যে তালিকা তৈরি করেছেন সেখান থেকে কিছু পন্য বাছাই করুন।
– এরপর একটি হৃষ্টপুষ্ট তালিকা করুন। আপনি নিয়মিত ভাবে এই তালিকায় ফলোআপ করবেন। আপনার পন্যের মুল ধারনা এই তালিকাতেই থাকবে।
– আপনি আপনার তালিকাটি নিয়ে কোন বিজ্ঞ ব্যক্তির পরামর্শ নিতে পারেন এবং কিছুদিন গবেষণা করুন পণ্যটিকে নিয়ে।

*একটি ধারনা স্থির করুন
আপনি যে পণ্যটি নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছেন এ পর্যায়ে এসে সিদ্ধান্ত নিন কোন পণ্যটি নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে চাচ্ছেন। তারপর পণ্যটি নিয়ে একটি নিজের মতো করে স্কেচ তৈরি করুন এবং নিজের থেকে পণ্যটি সম্পর্কে কিছু প্রশ্ন রাখুন।
– পন্য উন্নতির ক্ষেত্রে কি যোগ হতে পারে? আপনার পণ্যটি ক্রেতারা কেন ব্যবহার করবে? আপনার উদ্ভাবন কি বড়?
– আপনার উদ্ভাবনকৃত পণ্যটি কি অতিরিক্ত বা অপ্রয়োজনীয়? পণ্যটি উৎপাদন টি দক্ষ বা সস্তা করার কোন উপায় আছে কি?
– সমস্ত প্রয়োজনীয় অংশ এবং এটি কিভাবে কাজ করে বা এটা দিয়ে কি করব তা সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ বিবরণ সহ আপনার উদ্ভাবন সম্পর্কে সব দিক বিবেচনা করুন।

*আপনার আবিষ্কারের খোঁজ খবর নেন
যখন আপনি আপনার আবিষ্কারটিকে আত্মবিশ্বাসী মনে হবে এবং কোন পরিবর্তন করার কথা ভাবছেন, তা নিয়ে গবেষণা করুন। নিশ্চিত আপনার ধারণা সত্যিই বাস্তবায়িত হবে একদিন। আর এর পুরোটাই আপনার উপর নির্ভর করছে। যে কোন পন্য নিয়ে কাজ শুরু করার আগে তার সম্পর্কে পুলিশের মতো করে খোঁজ নেওয়ার চেষ্টা করুন।
– আপনার পণ্যটি সম্পর্কে অনলাইনে সার্চ দিন। আপনি যদি পন্যের নাম ঠিক করে থাকেন তাহলে দেখুন এই নামে কোন পন্য আছে কিনা।
– আপনি দোকানে দোকানে খোঁজ নিতে পারেন। আপনার পণ্যটির সাথে মিল আছে এমন পন্য সম্পর্কে খোঁজ নিন। ধারনা নিন বর্তমানে পণ্যটির কেমন ব্যবসা চলছে।
– আপনি কাছাকাছি ডিপোজিটরি লাইব্রেরি পরিদর্শন করে পেটেন্ট এবং ট্রেডমার্ক দেখতে পারেন। এখানে, আপনি আপনার মত অন্য পন্যের জন্য সব পেটেন্ট এবং আরও অনুসন্ধান করতে পারেন। এছাড়াও আপনি বিনামূল্যে আপনার অনুসন্ধান করার জন্য গ্রন্থাগারিকদের সাহায্য নিতে পারেন।

product-3

ধাপ-২ আপনার আবিষ্কারকৃত পেটেন্ট

* আপনার উদ্ভাবনের একটি রেকর্ড তৈরি করুন
আপনি আপনার পণ্যটির উদ্ভাবিত প্রথম ব্যক্তি তার জন্য অবশ্যই এর একটি পেটেন্ট থাকবে।
– আপনি পণ্যের উদ্ভাবক এবং উদ্ভাবন প্রক্রিয়ায় সবকিছুই সংরক্ষণ থাকবে। লেখা থাকবে কিভাবে আপনি ধারণা পেলেন, আপনি কিভাবে অনুপ্রাণিত হলেন, এটা কতদিনে এবং কেন করেছেন।
– আপনার গবেষণার একটি রেকর্ড রাখতে হবে এবং ইতিমধ্যে একটি পেটেন্ট আছে তার রেকর্ড থাকবে। আপনি প্রমাণ করতে হবে যে আপনার উদ্ভাবনকৃত পন্যের একটি পেটেন্ট আছে।
– আপনার আবিষ্কারের বাণিজ্যিক বিক্রয় মান বিবেচনা করুন। এমনকি যদি আপনি একটি পেটেন্ট আইনজীবী ব্যবহার করেন তবে তার জন্য পেটেন্ট ফি আছে। এই ফি আগে থেকেই নিশ্চিত করুন যে আপনি বাণিজ্যিক মূল্য এবং সম্ভাব্য আয় আপনার উদ্ভাবন এর বিক্রয় উপর ভিত্তি করে রেকর্ড করতে পারেন।
– আপনার উদ্ভাবন এর উপর একটি অনানুষ্ঠানিক অঙ্কন তৈরি করুন। আপনি অভিনব সৃষ্টি না করলেও আপনার উদ্ভাবন এর সঠিক অঙ্কন আপনার পেটেন্টের জন্য দায়ের করার প্রয়োজন হতে পারে।

* পেটেন্ট অ্যাটর্নি নিয়োগ করুন
পেটেন্ট এটর্নী রাখা খুব ব্যয়সাপেক্ষ হতে পারে। তবে তাদের সাহায্য অমূল্য হতে পারে। একটি পেটেন্ট অ্যাটর্নির প্রধান কাজ হচ্ছে সাহায্য করার জন্য। আপনি একটি পেটেন্ট পেতে এবং পেটেন্ট লঙ্ঘনের সময় যে মোকাবেলা করতে হয় সে সময় তাদের দরকার হয়।
– পেটেন্ট আইন সাম্প্রতিকতম পরিবর্তনের ওপর ভিত্তি করে পরামর্শ দিতে পারেন।
– কেউ আপনার পেটেন্ট লঙ্ঘন করছে, আপনার পেটেন্ট অ্যাটর্নি আপনার সমস্যা মোকাবেলা বা প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করার আইনগত পদক্ষেপ নিতে সাহায্য করতে পারবে।

* একটি শর্তাধীন পেটেন্ট আবেদন করুন
একটি শর্তাধীন পেটেন্ট আবেদন, এটি পিপিএ নামেও পরিচিত। আপনার ধারণা অনুলিপি অন্যদের থেকে নিরাপদ যখন আপনার পেটেন্ট আবেদন এখনও প্রক্রিয়া হচ্ছে যা ভবিষ্যৎ এ হবে। আপনি আপনার কিছু কাজের করানোর জন্য এধরনের আবেদন করতে পারেন। ফি নির্ধারিত থাকে।

ধাপ-৩ আপনার আবিষ্কার বাস্তবায়ন করুন

* একটি প্রোটোটাইপ তৈরি করুন
এই সময়টা আপনার জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। আপনি এমন একটি মডেল তৈরি করুন যা থেকে সবাই আপনার পন্যের পেটেন্ট দেখে ধারনা করতে পারে। আপনার নিজের পক্ষে প্রোটোটাইপ পরিচালনা করা সম্ভব না হয় তাহলে এক্ষেত্রে আপনি অন্য কোম্পানিকে কিছু অর্থ প্রদান করে তাদের ধারা করিয়ে নিতে পারেন। যদিও এটা বেশ ব্যয়বহুল। তাই এটা সম্পন্ন করার জন্য প্রথম আপনি নিজেই চেষ্টা করুন।

product-1

* প্রেজেন্টেশন প্রস্তুত করুন
পরবর্তী ধাপে আপনি একটি প্রেজেন্টেশন প্রস্তুত করুন আপনার পণ্যটির উপর যা মনিটরে স্লাইড আকারে সবার সামনে প্রদর্শিত হবে। প্রেজেন্টেশনে যা অন্তর্ভুক্ত থাকবে:
– প্রথমেই আপনার পরিচিতি দিন।
– তারপর পণ্যটির নাম এবং আপনার কোম্পানির নাম উল্লেখ করুন।
– পণ্যটির গুনাগুন বর্ণনা করতে হবে।
– পণ্যটি আপনার কি কি কাজে আসবে তার বিবরন থাকতে হবে।
– আপনার পণ্যটির সাথে অন্য অম্পানির পার্থক্য কোথায় তা জানাতে হবে।
– পন্যের মুল্য, আয়ুষ্কাল, ধরন থাকতে হবে।
সর্বোপরি প্রেজেন্টেশন এমন ভাবে দিতে হবে যাতে সবার কাছে অনেক আকর্ষণীয় মনে হয় এবং ক্রয় করার ইচ্ছা পোষণ করে।

* আপনার উদ্ভাবন উপস্থাপন করুন
আপনার পণ্যটিকে সবার সামনে কিভাবে উপস্থাপন করতে পারবেন তার সম্পর্কে পরিকল্পনা গ্রহন করেন। প্রয়োজনে অন্য কারো কাছ থেকে পরামর্শ নিন। আপনার উপস্থাপনের উপরই পন্যের স্থায়িত্বকাল নির্ভর করবে অনেকাংশে।

*পন্যের বিজ্ঞাপন দিন
আপনি সবকিছুই এ পর্যায়ে এসে অর্জন করেছেন। আপনার পেটেন্ট, আপনার প্রোটোটাইপ, একটি প্রস্তুতকারক এবং পরিশেষে আপনার পণ্যটি বাজারে আসার জন্য প্রস্তুত হয়েছে। সর্বাধিক বিক্রয় পেতে আপনি পন্যের বিজ্ঞাপন কিভাবে দিবেন তার উপায় খুঁজুন।
– স্থানীয় ব্যবসার মালিক এবং দোকান পরিচালকদের সঙ্গে দেখা করে তাদের সাথে আপনার পণ্য বিক্রি নিয়ে আলোচনা করতে পারেন। আপনি উদ্যোক্তাদের ব্যখ্যা করুন এবং আপনার প্রেজেন্টেশন এমনভাবে উপস্থাপন করুন যাতে বুঝাতে পারেন অন্যদের পন্য থেকে আপনার পণ্যটি কেন আলাদা।
– একটি স্থানীয় গ্রাফিক ডিজাইনারদের ধারা আপনার পন্যের জন্য একটি ভিডিও তৈরি করেন তারপর তা ক্রেতাদের সামনে তুলে ধরুন।
– টিভি, রেডিওতে, সংবাদপত্রে আপনার পণ্যটির বিজ্ঞাপন দিন। সংবাদপত্র, টেলিভিশন স্টেশন, এবং স্থানীয় রেডিও স্টেশন সব জায়গায় ছোট ফি প্রদান করে আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন।
– আপনার বন্ধু-বান্ধব এবং আপনার পরিবার আত্মীয় স্বজনের মাধ্যমে আপনার পন্যের প্রচার করতে পারেন।
– এছাড়া আপনি কোন মেলায় নিজের পন্য সবার সামনে উপস্থাপন করতে পারেন।
– কোন সম্মেলন ও অনুষ্ঠান করে পন্যের পরিচিতি করাতে পারেন।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY