কিভাবে আপনি বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করবেন?

0
501
কিভাবে আপনি বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করবেন?
5 (100%) 10 votes

একটি টেকসই বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করা হচ্ছে আপনার নিজস্ব সেভিংস হিসাব প্রতিষ্ঠা করে তা থেকে কিছু শেয়ার, ষ্টক ক্রয় করে রাখা। একটি ভালো পরিকল্পনা করার সময় আপনার জানতে হবে আপনি কোথায় আছেন এবং কোন জায়গায় বিনিয়োগ করার পরিকল্পনা করছেন। তারপর আপনি ভাবুন এবং সংজ্ঞায়িত করুন আপনি কিভাবে আপনার লক্ষ্যে পৌছাতে পারবেন এবং কোন বিনিয়োগ অপশনটি বাছাই করবেন। আপনার পরিকল্পনাটি তৈরি করতে দেরি করবেন না। আপনি আপনার ব্যাক্তিগত বিনিয়োগ পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছেন। এখন আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরব কিভাবে একটি বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করবেন তার কিছু কৌশল-

ধাপ-১ আপনি কোথায় দায়িত্বপ্রাপ্ত

  • বয়স অনুযায়ী বিনিয়োগ প্রকল্প নির্বাচন করুন- আপনার বয়স আপনার বিনিয়োগ কৌশলের উপর উল্লেখযোগ্য প্রভাব ফেলবে। সাধারনভাবে বলতে গেলে আপনার বয়স যদি কম হয় তাহলে আপনি ঝুঁকি গ্রহন করতে পারেন। এটা এর জন্য যে আপনার ব্যবসা বাজারে মন্দ প্রভাব পড়লেও একটি নির্দিষ্ট সময় থাকবে আপনার কাছে বিনিয়োগ মুল্য পুনরুদ্ধার করার জন্য। যদি আপনার বয়স ২৫ এর মধ্যে হয় তাহলে আপনার পোর্টফলিও এর জন্য আরও আক্রমণাত্মক বিনিয়োগ পরিকল্পনা করতে পারেন। আপনার বয়স যদি বেশি হয় তাহলে আপনি তুলনামুলক ভাবে কম আক্রমণাত্মক বিনিয়োগ করুন। কারন ব্যবসার জন্য যে ঝুঁকির প্রয়োজন তা আপনার বয়স বেশি হলে আপনি নাও নিতে পারেন।
  • আপনার বর্তমান আর্থিক পরিস্থিতি বুঝুন- আপনার আয়ের উপর বিনিয়োগ নির্ভর করে। আপনার আয় বিবেচনা করে বিনিয়োগ করার ক্ষেত্রে সচেতন হন। আপনার বাজেটের দিকে তাকান এবং আপনার মাসিক খরচ দেখুন যে কি পরিমান বিনিয়োগ করার সামর্থ্য আছে। আপনার যদি বাড়তি আয় থাকে তাহলে আপনি একটি ফান্ড করুন বিনিয়োগের জন্য এবং আপনি বড় অঙ্কের বিনিয়োগ করতে পারেন। আর আপনার আয় যদি সীমিত থাকে তাহলে তার সাথে সামঞ্জস্য রেখেই বিনিয়োগ করুন।
  • আপনার ঝুঁকির প্রোফাইল তৈরি করুন- আপনি আপনার বিনিয়োগের উপর কি পরিমান ঝুঁকি নিতে পারবেন তার উপর একটি প্রোফাইল তৈরি করুন। যদি আপনি তরুন হন তাহলে অধিক ঝুঁকি গ্রহন করতে পারেন এবং সে অনুযায়ী আপনার বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করুন। আপনার ঝুঁকি প্রোফাইলের উপর ভিত্তি করে আপনার বিনিয়োগ নির্বাচন করুন। মনে রাখবেন ব্যবসা মানেই ঝুঁকি। আপনার বিনিয়োগকৃত ব্যবসায় আপনি অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন। সেই সার্বিক দিক মাথায় রেখেই আপনার ব্যবসায় বিনিয়োগ করার চিন্তা করবেন।

ধাপ-২ আপনার লক্ষ্য স্থাপন করুন

  • বিনিয়োগের উপর লক্ষ্য সেট করুন- আপনি কি আপনার বিনিয়োগ থেকে বিনিয়োগের অর্থ উঠাতে চান? আপনি কি তাড়াতাড়ি অপসৃত করতে চান? আপনি কি একটি সুন্দর বাড়ি কিনতে চান? আপনার এইসব লক্ষ্য পূরণ ও অর্জন করার জন্য আপনার বিনিয়োগের উপর দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা করুন যার জন্য আপনি বিনিয়োগের উপর যথেষ্ট মুল্য দিতে পারবেন। আপনার লক্ষ্য যদি আক্রমণাত্মক হয় তাহলে আপনাকে অনেক টাকা বিনিয়োগ করতে হবে এবং অধিক ঝুঁকি গ্রহন করতে হবে। এমনভাবে লক্ষ্য সেট করুন যাতে আপনার বিনিয়োগের টাকা খুব দ্রুত উঠে আসে।
  • লক্ষ্য পূরণের জন্য সময় নির্ধারণ করুন- কত তাড়াতাড়ি আপনি আপনার আর্থিক লক্ষ্যে পৌছাতে চান? এর উপর ভিত্তি করে আপনার বিনিয়োগ পরিকল্পনাটি করুন। আপনি যদি দ্রুত বিনিয়োগের অংশ ফেরত পেতে চান এবং আপনি যদি অধিক ঝুঁকি গ্রহনের জন্য প্রস্তুত থাকেন এর কারনে আপনার ক্ষতিও হতে পারে তাহলে আপনি আরও আক্রমণাত্মক বিনিয়োগ পরিকল্পনা তৈরি করুন। আর যদি আপনার ধন সম্পদ ধীরে ধীরে বাড়াতে চান অর্থাৎ বিনিয়োগের অর্থ আপনার যে সময়ই আসুক না কেন এক্ষেত্রে আপনি বিনিয়োগের অর্থ ধীর ফিরতি উৎপন্ন নির্বাচন করুন।
  • আপনার তারল্য মাত্রা নির্ধারণ করুন- এখানে তারল্য বলতে বুঝাচ্ছে যে সম্পদটি আপনি দ্রুত নগদ অর্থে রূপান্তরিত করতে পারবেন। অনেক সময় আপনার দ্রুত নগদ অর্থের প্রয়োজন হতে পারে। সেই তারল্য আপনার কাছে সবসময় থাকতে হবে। যেমন আপনি অসুস্থ হলে বা আপনার পরিবারের কেউ অসুস্থ হলে আপনার দ্রুত নগদ টাকার প্রয়োজন হতে পারে। Stock Mutual Fund এর মাধ্যমে একদিনের মাঝে সহজেই তারল্য নগদে রুপান্তর করা যায়। অন্যদিকে Real Estate খুব একটা তরল হয়না। এটি সাধারনত কয়েক মাস বা কয়েক সপ্তাহ লাগে নগদে রুপান্তর করার ক্ষেত্রে।

ধাপ-৩ পরিকল্পনা তৈরি করুন

  • কিভাবে আপনি বিচিত্রতা আনতে পারবেন?- আপনি অবশ্যই চাইবেন না যে সব ডিম একই ঝুড়িতে থাকুক। উদাহারন হিসেবে ধরুন আপনি প্রতি মাসে স্টকের উপর ৩০% বিনিয়োগ করলেন, ৩০% বন্ডের উপর এবং ৪০% রাখলেন সেভিংস এ। এখন আপনার বিনিয়োগ এবং শতকরার উপর সামঞ্জস্যবিধান করে আপনার আর্থিক লক্ষ্য নিশ্চিত করুন।
  • নিশ্চিত করুন যে আপনার পরিকল্পনা আপনার ঝুঁকিগত প্রোফাইলের সাথে সঙ্গতিপূর্ণ- আপনি যদি আপনার আয়ের ৯০% ষ্টক থেকে আয় করে থাকেন, এমনও হতে পারে যে Stock Market Crash এর কারনে আপনার ক্ষতিও হতে পারে। তাহলে আপনি নিশ্চিত হন যে আপনি এই ঝুঁকিটি নিয়ে আয় করতে ইচ্ছুক।
  • আর্থিক উপদেষ্টার সাথে যোগাযোগ করুন- আপনার লক্ষ্য এবং ঝুঁকির Profile এর উপর ভিত্তি করে একটি পরিকল্পনা সেট করুন। আর যদি কোন বিষয়ে দ্বিধাগ্রস্ত থাকেন তাহলে একজন যোগ্যতা সম্পন্ন আর্থিক উপদেষ্টার পরামর্শ চাইতে পারেন।
  • আপনার অপশনটির তদন্ত করুন- আপনার বিনিয়োগ পরিকল্পনার উপর বিভিন্ন হিসাব পদ্ধতি ব্যবহার করতে পারেন। জীবনযাত্রার সাথে মিল রেখে স্বল্পমেয়াদী বিনিয়োগের জন্য আপনি ৬ থেকে ৭ মাসের একটি হিসাব সেট করতে পারেন। দীর্ঘমেয়াদী সঞ্চয়ের জন্য আপনি বিকল্প বিনিয়োগ পরিকল্পনা সেট করুন। তাহলে আপনি ১ বছর বা তার অধিক সময়ের জন্য পরিকল্পনা করুন।

ধাপ-৪ আপনার অগ্রগতি মুল্যায়ন করুন

  • সময়ে সময়ে আপনার বিনিয়োগের উপর মনিটর করুন- চেক করুন আপনার লক্ষ্য অনুযায়ী কাজ সম্পাদন হচ্ছে কিনা। আপনি যে Profile অনুযায়ী পরিকল্পনা করেছিলেন সে অনুযায়ী কি অগ্রসর হচ্ছেন? এ সম্পর্কে সব সময় মনিটর করুন। আপনার বিনিয়োগ পূর্ণবিচার করুন এবং চিহ্নিত করুন কোথায় কোথায় পরিবর্তন করতে হবে।
  • ঠিক করুন আপনার ঝুঁকিগত প্রোফাইল পরিবর্তন করার প্রয়োজন কিনা- সাধারন ভাবে বলতে গেলে আপনার বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে আপনি কম ঝুঁকি নিতে চাইবেন। সে অনুযায়ী পূর্বেই আপনার বিনিয়োগ পরিকল্পনাটি সাজিয়েছেন। আপনার যদি পর্যাপ্ত পরিমান টাকা থাকে তাহলে আপনি ঝুঁকিপূর্ণ বিনিয়োগ করতে পারবেন এবং আপনার নিজের উপর আস্থা আছে আপনি আপনার লক্ষ্যে পৌছাতে পারবেন।
  • আর্থিক লক্ষ্যে পোঁছানোর জন্য মূল্য নির্ধারণ করুন- আপনি আপনার ব্যবসার জন্য প্রচুর বিনিয়োগ করেছেন এবং আপনি প্রত্যাশা করবেন আপনার বিনিয়োগের অর্থ মুনাফায় পরিণত হোক। আপনি যদি আপনার লক্ষ্যে পৌছাতে পারেন তাহলে এটা আপনার জন্য ইতিবাচক। তাই আপনার লক্ষ্যে পৌঁছানোর জন্য আপনার বিনিয়োগের উপর সঠিক মুল্য নির্ধারণ করুন।

এভাবেই আপনি একটি বিনিয়োগ পরিকল্পনা করতে পারবেন। আশাকরি লেখাটি আপনাদের বিনিয়োগ পরিকল্পনা সম্পর্কে পূর্ণ ধারনা দিতে পারবে।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY