কিভাবে হ্যাক হওয়া থেকে আপনার সেল ফোন বাঁচাবেন?

0
219
কিভাবে হ্যাক হওয়া থেকে আপনার সেল ফোন বাঁচাবেন?
5 (100%) 1 vote

কম্পিউটার হ্যাকিংয়ের কথা তো আপনারা সবাই জানেন। কিন্তু অনেকেই জানে না মোবাইল ফোন কিভাবে হ্যাক করা হয়। বর্তমানে অনেক পদ্ধতি ব্যবহার করে সেল ফোন হ্যাক করা হচ্ছে। আপনার সেল ফোনের ভেতরে থাকা তথ্য যদি হারিয়ে যায়, চুরি বা ছিনতাই হয়ে যায় তাহলে আপনার অনেক ক্ষতি হতে পারে। মোবাইল হ্যাকিং এর কারনে মানুষের ব্যক্তিগত বিষয় অনেক কিছুই হারিয়ে যায়। সব তথ্য মুহূর্তের মধ্যে হ্যাকারদের কাছে চলে যায়। তাই আপনার সেল ফোনটির নিরাপত্তা জোরদার করুন। কিভাবে একটি সেল ফোন হ্যাক করা থেকে আপনার ফোনকে নিরাপদ রাখবেন সে বিষয়ে আপনার জন্য রইলো কিছু টিপস-

ধাপ-১ নিজেকে রক্ষা করুন

১। সুরক্ষা গ্রহন করার মানসিকতা থাকতে হবে
এই লেখা আপনাদের সতর্কের জন্য- এটা বাস্তবতা যে মাঝে মাঝে আপনার পরিচিত মানুষদের যারা ​​খারাপ উদ্দেশ্যের কারণে আপনার ব্যক্তিগত বিবরণ হ্যাক করতে পারে। যেমন আপনার অনেক কাছের মানুষকে আপনি বিশ্বাস করে আপনার মোবাইল ফোনটি ব্যবহার করতে দিলেন। তার সাথে আপনার সম্পর্ক যখন খারাপ হবে তখন সেই আপনার দুর্বলতার সুযোগ নিতে পারে। এক্ষেত্রে আপনি নিচের টিপসগুলো মনে রাখবেন-

  • আপনার ফোনে পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
  • আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড যে কাউকে দেওয়া থেকে বিরত থাকুন।
  • আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড কখনো সোশ্যাল নেটওয়ার্কে ব্যবহার করবেন না।
  • আপনার ফোনে প্রোগ্রাম পাসওয়ার্ড ব্যবহার করবেন না।
  • আপনার ফোনে কখনো দীর্ঘ সময়ের জন্য কোন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য রাখবেন না।
  • সন্দেহজনক নম্বর থেকে ফোন ধরা বাদ দিন।
  • ইমেইল, টেক্সট ম্যাসেজ, ছবি, ভিডিও, ফেসবুক অনেক কিছু থাকতে পারে ফোনে সেগুলো ওপেন করার জন্য ৪ অক্ষরের সিকিউরিটি কোড ব্যবহার করুন।
  • জনবহুল স্থানে স্মার্টফোনটি নিরাপদ স্থানে রাখতে হবে।

২। ব্যাকআপ রাখুন
অন্য কোথাও আপনার স্মার্ট ফোনের গুরুত্বপূর্ণ চিঠিপত্রের একটি ব্যাকআপ কপি, সংযুক্ত ফাইল বা ফটো কপি আপনি সংরক্ষণ করতে পারেন। আপনার পিসি, ল্যাপটপ, ট্যাবলেট ইত্যাদিতে ব্যাক-আপ রাখতে পারেন।

৩। চিন্তা করুন
আপনার অনেক মুল্যবান তথ্য চুরি হচ্ছে আপনার অনুমতি ছাড়াই, বিবেচনা করুন আপনার করনীয় কি হতে পারে? আপনার ফোনে গোপনীয় তথ্য রাখা বন্ধ করুন এবং যদি থাকে তা অবিলম্বে মুছে ফেলুন। আপনার ফোন যদি বিক্রি করার চিন্তা ভাবনা থাকে তাহলে ফোন থেকে সমস্ত তথ্য মুছে ফেলুন এবং তারপর বিক্রয় করুন। নিজের নিরাপত্তা নিজেই রাখুন।

ধাপ-২ পাসওয়ার্ড জোরদারকরণ

  • আপনার কণ্ঠস্বর দিয়ে পাসওয়ার্ড দিতে পারেন
    আপনার ফোনে আপনার কণ্ঠস্বর দিয়ে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারেন। এক্ষেত্রে Settins এ গিয়ে আপনার Voice mail option টি অন করুন তারপর আপনার কণ্ঠস্বর দিয়ে একটি voice record করে সেভ করুন। আপনার কণ্ঠ ছাড়া এরপর কেউই আপনার ফোনের লোক খুলতে পারবে না।
  • এমন একটি পাসওয়ার্ড দিন যা আন্দাজ করা কঠিন
    আপনার মোবাইল ফোনের জন্য একটি শক্তিশালী পাসওয়ার্ড লাগান। যা সহজেই কেউ আন্দাজ করতে পারবে না। ক্যারেকটার, নাম্বার ও সিম্বল এর মাধ্যমে আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড দিতে পারেন। আপনার পাসওয়ার্ডটি দীর্ঘ করার চেষ্টা করবেন।
  • সব ফোনের পাসওয়ার্ড একই দিবেন না
    আপনার একাধিক ফোন থাকতে পারে। এক্ষেত্রে অনেকেই সব ফোনের লক খোলার পাসওয়ার্ড একই দিয়ে থাকে। কিন্তু এটা বোকামি ছাড়া আপনার জন্য আর কিছু না। তাই ফোনের পাসওয়ার্ড একই দিবেন না। কারন অনেক সময় আপনার একটি ফোনের পাসওয়ার্ড ভুলবশত কেউ জানলো তাহলে যে কেউ ঐ পাসওয়ার্ড দিয়ে অন্য ফোনের লক খোলার চেষ্টা করবে।
  • আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড সবসময় আপডেট রাখুন
    সুরক্ষিত রাখতে আপনার পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করতে ভুলবেন না। আপনি নির্দিষ্ট সময় পর পর আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করুন। এক্ষেত্রে আপনার ফোনের পাসওয়ার্ড দেওয়ার ক্ষেত্রে আপডেট পাসওয়ার্ড দিয়ে রাখতে পারেন।

ধাপ-৩ অন্যান্য সিকিউরিটি

  • আপনার ব্লুটুথ অপশন বন্ধ রাখুন
    আপনি সবসময় অবশ্যই খেয়াল রাখুন যে আপনার মোবাইল ব্লুটুথ অপশনটি অফ আছে। আপনার যখন দরকার হবে তখনই অন করবেন।
  • ইন্সটল করুন mobile security software যদি আপনার ফোনে সাপোর্ট করে
    এটা নির্ভর করবে আপনার ফোনের উপর যদি আপনার ফোনে এই ফ্রি অপশনটি থাকে। এমন অনেক ফোন আছে যেখানে এই Apps ব্যবহার করা যায় না। বেশিরভাগ স্মার্ট ফোনে এগুলো ব্যবহার করা যায়। এমন অনেক সফটওয়্যার আছে যেগুলো আপনার ফোনে আপডেট রাখলে আপনার ফোন চুরি হলেও এই Apps এর মাধ্যমে খুঁজে পেতে পারেন।
Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY