ছেলেরা কিভাবে নিজেকে আকর্ষনীয় করবেন

0
2377
ছেলেরা কিভাবে নিজেকে আকর্ষনীয় করবেন
3 (60%) 2 votes

নিজেকে আকর্ষনীয় করতে কে না চায়। কিন্তু সবাই কি পারে? নাহ, সবার থাকে না এই যোগ্যতা। চর্চা করে অর্জন করে নিতে হয় মানুষকে আকর্ষণ করার এই বিশেষ ক্ষমতাটি। হতে পারে আপনার ক্লাসে এমন কেউ আছে যাকে আপনি পছন্দ করেন। মনে রাখবেন মেয়েরা ছেলেদের কিছু বাহ্যিক আচরণের ভিত্তিতে তার ভিতরের রূপের একটা মোটামুটি ধারণা করে নেয়। তাই বাস্তবে আপনার অবস্থা যাই হোক না কেনো এমন মেয়েদের সামনে আপনাকে অবশ্যই উপস্থাপনের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করতে হবে, যদি পারেন তাহলে তাদের চোখে সহজেই আকর্ষনীয় হতে পারবেন, নয়তো প্রথমেই আপনি অপছন্দের বস্তুতে পরিণত হবেন। মুলত আমি যে বিষয় গুলো নিয়ে আলোচনা করবো তা শুধু মেয়েদের কাছেই না সকল জায়গায়ই আপনাকে আকর্ষনীয় করে তুলবে। এই মতামতটি কার্যত আপনাকে আরো আকর্ষনীয় করতে সাহায্য করতে পারে কিন্তু গড়ে তুলতে পারবে না যদি না নিজেকে গড়ে তুলেন।

আত্মবিশ্বাসী হোন

যে কোন কাজে সফল হতে কে না চায়? কিন্তু কাঙ্খিত সফলতা কয়জন ছিনিয়ে আনতে পারে? কঠোর পরিশ্রম, কাজে একাগ্রতা, সময়ানুবর্তিতা এসব যে সফলতার চাবিকাঠি তা তো আমরা সবাই জানি তাইনা। তবু ও কেন কেউ সফল আর কেউ ব্যর্থ? মূল পার্থক্যটা গড়ে দেয় অন্যকিছু। আর তা হল নিজের উপর আস্থা আর বিশ্বাস। উত্থান পতন মানুষের জীবনের সাথে অঙ্গাআঙ্গি ভাবে জড়িত। কিন্তু পতন মানেই পরাজয় নয়। পড়ে গিয়ে আবার দাড়ানোর অনাগ্রহ টাই হলো পরাজয়। হাঁটতে গিয়ে হোঁচট খেয়ে পড়ে যাওয়াটা যদি পরাজয় হতো, তবে হোঁচট খাওয়া বাচ্চাটা কোনদিনই দৌড়াতে পারত না। চলার পথে বাধা আসবেই। তাই বলে পরাজয় মেনে নিলে হবে না। আগে নিজেকে জানেন, নিজের উপর পুর্ণ বিশ্বাস রাখেন। কারন নিজেকে আপনি যেভাবে উপস্থাপন করবেন পৃথিবী আপনাকে সেই ভাবেই দেখবে। প্রিয় মানুষটির মনোযোগ আকর্ষণ করার জন্য ও আত্মবিশ্বাস থাকা জরুরী। কথায়, কাজে, ব্যক্তিত্বে সব সময় আত্মবিশ্বাস বজায় রাখুন। আপনি আত্মবিশ্বাসী হলে আপনার প্রিয় মানুষটি আপনার প্রতি আকর্ষণবোধ করবে এবং আপনি তার মনোযোগের কেন্দ্রবিন্দু হয়ে উঠবেন। নিজের শক্তি ও দুর্বলতাগুলো খুঁজে বের করা হলো আত্ম-বিশ্বাস বাড়ানোর প্রথম ধাপ। তারপর শক্তির জায়গাগুলো বাড়াতে হবে আর দুর্বলতার জায়গাগুলো কমাতে হবে। যদি পারেন কিছু দিনেই দেখবেন সবার কাছে কেমন আকর্ষনীয় হয়ে গেছেন।

নিজেকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখুন

নিজেকে আকর্ষনীয় করে রাখার জন্য পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার চেষ্টা করুন সব সময়। ফেস, চুল ও বডির যতটুকু প্রকাশ পায় তা যেন সুন্দর ও মসৃণ থাকে। কোনভাবেই যেন চামড়ায় বয়স্কের ছাপ ফুটে না উঠে। এছাড়াও ক্লিন সেভ একটি সুন্দর টনিক। রোজ গোসল করুন ও দিনে দুইবার ব্রাশ করুন। মুখের জন্য উন্নত মানের টুথপেস্ট ব্যবহার করুন। যদি চান কোন মেয়ে আপনার প্রতি আকর্ষন বোধ করুক তাহলে জেনে রাখুন খুব অদ্ভুত শোনালেও সত্যি যে মেয়েরা হাফ হাতা বা ফুল হাতা শার্ট পড়া ছেলেদের চাইতে ফুলহাতা শার্টের হাতা ফোল্ড করে কুনুই পর্যন্ত গুটিয়ে রাখা ছেলেদের প্রতি অনেক বেশিই আকর্ষণ বোধ করেন। কিন্তু সেটি অবশ্যই ক্লিন পোশাক হতে হবে। যদি পোশাকে ময়লা বা উৎকট গন্ধ থাকে তবে প্রথমেই সে ফিরে দাঁড়াবে। তাই এ বিষয়ে সচেতন হোন। পৃথিবীতে পরিপাটি সুসজ্জিত মানুষকে পছন্দ করেন সবাই। সুন্দর হালকা কোনো সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন চাইলে।

handsome-2

সুন্দর কথাবার্তা

কথাবার্তায় স্মার্ট হোন। আঞ্চলিক সুর পরিহার করুন। প্রয়োজনে ইংলিশ-বাংলিশ সুন্দর করে মিশিয়ে স্মুথ ভাষা তৈরী করুন, তবে অপ্রচলিত গ্রাম্য শব্দ ব্যবহার থেকে বিরত থাকুন। শুদ্ধ উচ্চারণ শিখুন। কারো সাথে চোখে চোখ রেখে কথা বললে সহজেই তাকে আকর্ষণ করা যায়। কথা বলার সময় চোখে চোখ রেখে কথা বলে চোখের যাদুতে আটকে ফেলুন মানুষকে। চোখে চোখ রেখে কথা বললে আপনার আত্মবিশ্বাস দেখেও মুগ্ধ হবে অনেকেই। খুব বেশি কথা বলবেন না তবে এর মানে এই নয় যে, একেবারেই কথা বলবেন না। আপনার সামনের ব্যক্তিকে ও কথা বলার সুযোগ দিন। একঘেয়েমি মানুষ কখনো কারো মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারে না। মানুষের মনোযোগ আকর্ষণ করার জন্য কথায় রসবোধ রাখুন। কথায় রসবোধ ও বুদ্ধিমত্তার ছোঁয়া থাকলে সহজেই মানুষকে আপনার প্রতি আকর্ষিত করতে পারবেন।

বুদ্ধিমত্তা ও রসিকতা

কম-বেশ বুদ্ধিমত্তা আমাদের সবার মধ্যেই রয়েছে। আর একজন মানুষের জীবনের সফল্যের পিছনে যে জিনিসটা সবচেয়ে বড় ভুমিকা পালন করে তা হচ্ছে তার বুদ্ধিমত্তা। তার চালচলন, কথাবার্তা বা কারো কথার প্রত্যুত্তর ইত্যাদির মাধ্যমে বুদ্ধিমত্তা প্রকাশ পায়। এছাড়াও যেসব ছেলেদের বুদ্ধিমত্তা ভালো মেয়েরা তাদেরই বেশি পছন্দ করে। অথবা সাধারণ একটি বিষয়কে কোনো নারীর কাছে অসাধারণ করে দিলেন তিনি, এ ধরনের বৈশিষ্ট্য যে পুরুষদের মধ্যে রয়েছে তাদের প্রতি আকর্ষন বোধ করেন নারীরা। সাম্প্রতিক এক জরিপে এ বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত হয়েছে। এছাড়া মেয়েরা সাধারণত একটু রসিক ছেলেদের ভালোবাসে। যে কোনো বিষয় নিয়ে উপস্থিত ভাবে রসালাপ করতে পারে এমন ছেলেদের প্রতি মেয়েরা বেশি আকৃষ্ট হয়।

বোনাস কিছু টিপস

  • যদি আপনি হতাশ ও থাকেন কখনো তা প্রকাশ করবেন না।
  • সব সময় সৎ ও স্বচ্ছ থাকুন।
  • হাসি খুশি থাকার চেষ্টা করুন। হাসিখুশি মানুষ সবার মনোযোগ আকর্ষণ করতে পারে খুব সহজেই।
  • কিছুতেই নিজের দুর্বলতা প্রকাশ করা যাবে না।
  • একটা কথা প্রচলিত আছে তা হল- প্রথমে দর্শনধারি পরে গুনবিচারি। তাই আকর্ষনীয়তার ক্ষেত্রে ও আপনার বাইরের লুকটি সবার নজরে আসবে তাই খেয়াল রাখুন।
  • handsome-4

  • খুব টাইট বা খুব ঢিলা পোশাক পরবেন না। পোশাক বানানোর সময় কিছু বিষয় লক্ষ্য রাখুনঃ

    [১] আপনার শার্টের শোল্ডারটি যেন একেবারে আপনার কাঁধের সাথে সামঞ্জস্য হয়ে থাকে সেদিকে খেয়াল রাখুন। শার্টের হাতা একেবারে হাতের মাপে করুন।

    [২] শার্টের কলারের দিকে নজর দিন। এটি যেন শক্ত না হয়ে থাকে। এটি বেশি হার্ড হলে তা আপনার ঘাড়ে বিরক্তির কারণ হবে।

    [৩] প্যান্ট বানানোর ক্ষেত্রে একটি বিষয় খেয়াল রাখুন বর্তমান সময়ে প্যান্টে কোন প্লেট থাকে না। প্যান্টের ক্ষেত্রে পায়ের গোড়ালি থেকে একটু উপরে রাখুন।

  • সুন্দর হেয়ারকাট এবং নখ ছোট রাখার চেষ্টা করুন।
  • সুন্দর হাসি দেওয়ার চেষ্টা করুন।
  •  আপনার হাঁটার স্টাইল আকর্ষণীয় করার চেষ্টা করুন। বিভিন্ন মুভি দেখে হাঁটার স্টাইল প্র্যাকটিস করতে পারেন।
  • ভাল শ্রোতা হোন। অন্যের কথার মাঝে বাধা দিয়ে কথা বলবেন না। সব কথা শুনার পর নিজের গঠনমূলক বক্তব্য দিন।
  • খুব অল্প কথায় নিজের বক্তব্য প্রকাশ করার চেষ্টা করুন।
  • ব্যক্তিত্ব কিংবা পার্সোনালিটি নিজেকে আরো বেশি আকর্ষনীয় করে তোলার ক্ষেত্রে কার্যকর। তাছাড়া ব্যক্তিত্বসম্পন্ন পুরুষ সকলের কাছেই আকর্ষনীয়।
  • মেয়েদের সামনে ভাল আচনর করুন। যেমনঃ আগে গিয়ে দরজা খুলে “After you” বলে সবাইকে যাওয়ার সুযোগ দেওয়া।
  • কখনো কারো সামনে উশৃঙ্খল হবেন না। উশৃঙ্খল ছেলেদের কেউ ভালো চোখে দেখে না।

আমার আজকের এই আয়োজন এই পর্যন্তই। নিজেকে আকর্ষনীয় করার জন্য উপরের বর্নিত বিষয় গুলো অবলম্বন করার চেষ্টা করুন। দেখবেন আপনার মধ্যে কিছু না কিছু পরিবর্তন পরিলক্ষিত হচ্ছে। এটি আপনাকে শুধু ব্যাক্তিগত জীবনেই না আপনার কর্পোরেট লাইফ এ ও উন্নতি করতে সহায়তা করবে।

Jannatul Jarin

Jannatul Jarin

Jannatul Jarin is very friendly person and she completed her B.B.A from Daffodil International University in Marketing Major. Besides She was very conscious about fashion trend and beauty. She likes to smile herself and make laugh to others. She also write about online marketing. She is Self-Dependent, hard working and focused.
Jannatul Jarin

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY