নতুন উদ্যোক্তাদের ব্যর্থতার কারন ও প্রতিকার

0
1010
নতুন উদ্যোক্তাদের ব্যর্থতার কারন ও প্রতিকার
1 (20%) 1 vote

সকল উদ্যোক্তাই সফল হতে পারেন না। আবার যারা সফল হন তাঁরাও যে খুব সহজে সফল হয়েছেন- তা নয়। অনেক পরিশ্রম আর মেধার সমন্বয়ে উদ্যোক্তা তার সফলতার পথ খুঁজে নেন। সফল হওয়ার সড়কে নেমে অনেকেই পিছনে পরে যান। অন্য একজন যখন সফলতার সিঁড়ি বেয়ে উপরে উঠছেন তখন কেন কিছু উদ্যোক্তা সফলতার পথে এগুতে পারছেন না? এর রয়েছে কিছু কারন।

অবশ্যই একজন প্রকৃত উদ্যোক্তা ব্যবসায় ব্যর্থতাকে সাফল্যের পথে একটি মাইলস্টোন বলে মনে করে। তারা ভুল থেকে শিক্ষা নেয় এবং ভুলগুলো তাদেরকে ব্যবসায়ী হিসেবে আরো বেশী পরিণত করে পাশাপাশি নতুন আইডিয়া নিয়ে নতুন উদ্যমে কাজ শুরু করতে সাহায্য করে। সে ক্ষেত্রে এই পরিসংখ্যান অনুযায়ী উত্তীর্ণ এই ৪৫ভাগ উদ্যোক্তাই প্রকৃত উদ্যোক্তা ছিল। একজন উদ্যোক্তার ব্যর্থতার পেছনে যে উল্লেখযোগ্য কারণগুলো রয়েছে তা আপনাদের সামনে উপস্থাপন করা হলঃ

why-enterprenure-fail-in-business

লিখিত পরিকল্পনা না থাকা

আপনি আসলে কোথায় পৌঁছতে চান তার একটি লিখিত পরিকল্পনা থাকতে হবে। অনেকেই মনে মনে করেন ব্যবসা তো শুরু করেছি দেখি কি হয়। এমন উদাসীন থাকলে উদ্যোক্তা সফল হতে পারে না। একজন উদ্যোক্তা কি করতে চান, কিভাবে করতে চান, কত সময়ের মধ্যে করতে চান, কোথায় পৌঁছতে চান- এই সমস্ত বিষয়গুলো লিখিত আকারে থাকলে পথ খুঁজে নেওয়া সহজ হয়।

সঠিক ব্যবসা মডেল না থাকা

একজন নতুন উদ্যোক্তা অবশ্যই পুরাতনের তুলনায় কম জানেন। তাকে নানান বিপর্যয়ের মধ্যে দিয়ে শিখতে হয়। এ ক্ষেত্রে তিনি বিশেষ কোন সফল উদ্যোক্তাকে অনুসরণ করতে পারেন বা বিশেষ কোন সফল প্রতিষ্ঠানকে তার মডেল হিসেবে বিবেচনা করে এগিয়ে যেতে পারেন। উদ্যোক্তা যে বিজনেস মডেলটি অনুসরণ করছেন তা অনুসরণ করে অন্যরা সফল হয়েছেন কি না তা খতিয়ে দেখুন।

আইডিয়া নয়, দরকার সুযোগ সৃষ্টি

বিভিন্ন ব্যবসায়িক সুযোগ সুবিধা তৈরী না হওয়ার কারনে অনেক উদ্যোক্তাই ঝরে পড়েন। দেখা যায় ভালো আইডিয়া কিংবা ভালো পণ্য থাকা সত্ত্বেও অনেক ব্যবসায়ী সফল হতে পারছেন না। ব্যবসায়ে সুযোগ তৈরি হওয়ার একটা ব্যাপার আছে আবার সুযোগ তৈরি করারও একটা ব্যাপার আছে। একজন ভালো উদ্যোক্তা জানেন কিভাবে ব্যবসার সুযোগ তৈরী করে নিতে হবে।

পরিচালনায় ব্যথর্তা

পরিচালনায় অপটুতা উদ্যোক্তার ব্যর্থতার কারন হতে পারে। ব্যবসায়িক মনোভাব এবং ব্যবসায়ে পরিপক্বতা অর্জন খুব জরুরী বিষয়। অনেকেরই প্রচুর বিনিয়োগ করার সামর্থ্য আছে কিন্তু তা সঠিকভাবে পরিচালনা করার সামর্থ্য নেই।

তীব্র প্রতিযোগিতা

ব্যবসার জগতে ধাবমান আরো অনেক উদ্যোক্তার সাথে প্রতিযোগিতায় লিপ্ত হতে হয়। আর বর্তমান সময়ে এই প্রতিযোগিতা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। সে ক্ষেত্রে একজন নতুন উদ্যোক্তাকে প্রথমেই এসে হিমসিম খেতে হয়। এ জন্য মার্কেটিংয়ের আগে একজন উদ্যোক্তার মার্কেটপ্লেস সর্ম্পকে সম্যক ধারণা নিয়ে নিজস্ব মার্কেটিং পলিসি নির্ধারণ করে এগিয়ে যাওয়া উচিত। প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার মনোবল না থাকাও উদ্যোক্তার অসফলতার কারন।

কৌশলী দৃষ্টিভঙ্গির অভাব

ব্যবসায়ে অনেক কৌশল অবলম্বন করতে হয়। একটি মাত্র সিদ্ধান্তই একটি ব্যবসাকে সর্বোচ্চ সফলতায় নিয়ে যেতে পারে আবার ব্যর্থতায় তলিয়ে করতে পারে। সে ক্ষেত্রে উদ্যোক্তার ব্যবসায়ে কৌশলী হওয়ার বিষয়টি খুব গুরুত্বপূর্ণ। কৌশলী দৃষ্টিভঙ্গি না থাকলে ব্যবসার উন্নতি সম্ভব না।

দরকার স্বপ্নবাজ সহকর্মী

উদ্যোক্তার সহকর্মীরা হবেন উদ্যোক্তার মতই স্বপ্নবাজ। আর এজন্যই ব্যবসায়ে সহকর্মী নির্বাচন খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। অভিজ্ঞ, পরিশ্রমী, সৎ সহযোগি নির্বাচন না করলে ব্যবসা স্থিমিত হয়ে পড়ে। শুধুমাত্র চাকুরীজীবী দিয়ে উদ্যোগ সফল হয় না।

যথেষ্ঠ মার্কেটিং জ্ঞান না থাকা

সম্ভাব্য গ্রাহক কারা-বিষয়টি বুঝতে হবে। উদ্যোক্তার যথেষ্ঠ মার্কেটিং জ্ঞান না থাকলে মার্কেট গবেষণা সম্ভব নয়। বর্তমান বাজারে মার্কেট গবেষণা না করে, সিদ্ধান্ত নিলে অনেক সময় তা সফল হয়না।

ধৈর্যচ্যুত হওয়া

হোঁচট খেলেই থামতে হবে- তা নয়। উদ্যোক্তা মাত্রই সে উদ্যমী এবং প্রথম অবস্থায় তাকে নানান অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হবে। কিন্তু দেখা যায় অনেকেই প্রাথমিক ভাবে কোন হোঁচট খাওয়ার পর মনোবল হারিয়ে ব্যবসায়ে আগ্রহ হারিয়ে ফেলেন। অথচ এই হোঁচটই তার জন্য ছিল শিক্ষণীয়। ধৈর্য সহকারে প্রতিটি ব্যর্থতাকে কাটিয়ে সাফল্যের পথে হাঁটাই একজন প্রকৃত উদ্যোক্তার পরিচয়।

উদ্যোম হারিয়ে ফেলা

অনেকেই শুরু করেন আট ঘাট বেঁধে। কিন্তু মাঝ পথে গিয়ে আর এই উদ্যোম থাকেনা। মোটামুটি একধরনের উদাসীন হয়ে যান। আর উদ্যোম হারিয়ে ফেললে সফলতা আর আপনার হাতে ধরা দেবেনা।

ব্যবসা অসফল হওয়ার অনেক কারন রয়েছে। এবং এক্ষেত্রে কিছু পদক্ষেপও রয়েছে যেগুলো ব্যবসা মালিকগন অনুসরন করলে এ অসফলতা প্রতিরোধ করা সম্ভব।

tips-for-success

আসুন তাহলে জেনে নেই কোন পদক্ষেপ গুলু একান্তই জরুরি

  • ১। কিছু কিছু ব্যবসায়ীর কাছে বাঁচিয়ে চলার মত পয়সা থাকে না। অন্তত ছয় মাস পর্যন্ত উটকো খরচ থেকে নিজেকে এবং ব্যবসাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে। বেহিসাবি খরচ করা যাবে না।
  • ২। অনেক ব্যবসায়ের বাৎসরিক বিজ্ঞাপন বলতে কিছুই থাকে না। আপনাকে অনেক বিজ্ঞাপন প্রচার করতে হবে যাতে করে জনগন আপনার কোম্পানী ও এর পণ্য সম্পর্কে অবগত হতে পারে। মনে রাখবেন, আপনার ব্যবসা সফল করার জন্য বিজ্ঞাপন হচ্ছে একটি অন্যতম শক্তিশালী অস্ত্র।
  • ৩। কিছু কোম্পানী অধিক বিক্রি করতে না পারার কারনে ব্যর্থ হয়। এক্ষেত্রে আপনাকে অনেক বিজ্ঞাপন দিতে হবে এবং পণ্যের মূল্য কমাতে হবে। এছাড়াও আপনি বিশেষ সুযোগ/অফার রাখতে পারেন ক্রেতাদের জন্য, তাতে বিক্রি বাড়বে।
  • ৪। অনেক কোম্পানী পর্যাপ্ত পরিমান কর্মচারী রাখে না। যখন আপনার কাছে প্রচুর কাজ থাকবে তখন আপনাকে অনেক কর্মচারী নিয়োগ করতে হবে। আপনি সময়মত পণ্য বিতরন করতে না পারলে ক্রেতারা আপনার কাছ থেকে দূরে সরে যাবে এবং যথার্থই ব্যবসা ব্যর্থ হবে।
  • ৫। অনেক কোম্পানীর উচ্চ বাজেট থাকে না। এটাও অনেক ব্যবসা ব্যর্থ হওয়ার কারন। এক্ষেত্রে কোম্পানী তাদের প্রয়োজনীয় খরচ বা চাহিদা পরিশোধ বা পূরণ করতে পারে না। তাই কোন ব্যবসা আরম্ভ করার পূর্বে ব্যবসা মালিকের উচিত অনেক টাকা নিয়ে ব্যবসায় নামা অথবা ব্যবসা লোন নেয়া।
  • ৬। অনেক কোম্পানী মন্দা সময় গুলোতে টিকে থাকতে পারে না। ফলে তারা ব্যর্থ হয়। তাই কোম্পানীর মালিকের উচিত ভালো সময় গুলোতে অনেক বিক্রি করা এবং টাকা জমিয়ে রাখা যাতে করে খারাপ সময়গুলোতে টিকে থাকা যায়।
  • ৭। অনেক কোম্পানী প্রয়োজন সত্ত্বেও টাকার অভাবে ব্যবসা সম্প্রসারন করতে পারে না। এক্ষেত্রে কোম্পানীর উচিত ব্যবসা লোন নেয়া, টাকা সঞ্চয় করা এবং অন্য জায়গায় কাজ দেয়া।
  • ৮। অনেক কোম্পানীকে প্রোফেশনাল মনে না হওয়ার কারনে তারা অধিক বিক্রি করতে ব্যর্থ হয়। সফল হতে হলে যা যা করা প্রয়োজন এক্ষেত্রে কোম্পানীগুলোকে তাই করতে হবে।
  • ৯। অনেক কোম্পানী তাদের পণ্যের মূল্য অধিক কমিয়ে ফেলে, লক্ষ্য বিক্রি বাড়বে। কিন্তু এটা আপনাকে ব্যর্থদের তালিকাভুক্ত করবে। পন্যের দাম বাজার অনুযায়ী কমাতে হবে, আপনার ইচ্ছানুযায়ী নয়। অধিক কম মূল্যের পন্য ক্রেতা পরিহার করবে, কারন? একজন সাধারন ক্রেতার মত চিন্তা করে দেখুন, উত্তর পেয়ে যাবেন।
  • ১০। কিছু কিছু কোম্পানী সমাজ বা রাষ্ট্র বা সরকারের নিয়ম-নীতি ভঙ্গ করে ব্যবসা করতে চায় যার কারনে তারা একসময় দেউলিয়া হয়ে যায়। আপনাকে সকল নিয়ম-কানুন মেনে ব্যবসা পরিচালনা করতে হবে।
Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY