নিজের মর্যাদা ধরে রাখার উপায়

0
486
নিজের মর্যাদা ধরে রাখার উপায়
3.3 (66.67%) 3 votes

এই পৃথিবীতে অনেক ধরনের মানুষই রয়েছেন। কেউ হয়তবা অনেক ভালো, কেউ অনেক বেশি খারাপ, কেউ আবার মাঝামাঝি পর্যায়ের। কিন্তু মানুষ জন্মগতভাবে কখনই খারাপ থাকে না। জন্মের পর পরিবেশগত কারণে বা অন্য কোনো বাস্তব কারণে খারাপের পথে অগ্রসর হয়। তবু সব মানুষের ভেতরেই একটি পবিত্র সত্ত্বা রয়েছে। পৃথিবীটিতে অনেক খারাপ কাজের মাঝে নিজেকে ভালো রাখাও অনেক কঠিন একটি কাজ। নিজেকে ভালো রাখতে এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখতে মেনে চলুন কিছু কৌশল।

  • ভালো মানুষ হয়ে ওঠার জন্য এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখার জন্য সবার প্রথমে যে বিষয়টি থাকতে হবে সেটি হল ইচ্ছাশক্তি। যত খারাপ পরিবেশেই আপনি বসবাস করেন না কেন আপনি একজন ভালো মানুষ হয়েই বেঁচে থাকবেন এমন ধরনের ইচ্ছাশক্তি থাকতে হবে। ইচ্ছা থাকলেই আপনি পারবেন একজন ভালো মানুষ হতে এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখতে।
  • নিজের একটি সুন্দর ও পৃথক ব্যক্তিত্ব তুলে ধরার চেষ্টা করুন। কারো অনুকরণ করে নয়, বরং সবাই যেন আপনাকে অনুসরণ করতে চায় সেভাবেই নিজেকে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন। আর এই জন্য, আপনি যেমন আছেন তেমন থাকারই চেষ্টা করুন। জোর করে কোনও কিছু নিজের ওপরে আরোপ করতে যাবেন না।
  • যখন যে কাজটি করছেন তখন শুধু সেই কাজেই মনোযোগ দিন। অর্থাৎ কর্মক্ষেত্রে যখন আছেন তখন সেখানেই মনোযোগ ধরে রাখুন, আবার যখন পরিবার বা বন্ধুবান্ধবের সাথে আছেন তখন তাদের সাথেই সময় কাটান। এভাবে আপনি নিজের শতভাগ ব্যবহার করতে পারবেন।
  • মানুষ হিসেবে যে সম্মানটা আপনি অন্যদের কাছ হতে আশা করেন, ঠিক তেমনই অন্যদেরকে সম্মান দিতে শিখুন। বড়দের করুন শ্রদ্ধা আর ছোটদের দিন স্নেহ। আপনি পারবেন একজন ভালো মানুষ হতে এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখতে।
  • ভালো মানুষ হয়ে টিকে থাকতে এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখতে অনেক ধরনের পরীক্ষা চালাতে হবে। যেমন ধরুন গরীবদের সাহায্য করা, ভালো কাজ করা ইত্যাদি। আপনি ভালো থাকবেন তখনই যখন আপনি পাশের মানুষটিকে ভালো পথের নির্দেশনা দিবেন। এভাবে নানা ধরনের পরীক্ষা চালিয়ে নিজেকে ভালো রাখুন।
  • অসহায়দের নানা ধরনের সহযোগীতা করার মত মনোভাব আপনার মাঝে থাকতে হবে। আপনার মন কতটা উদার তা নির্ভর করবে অসহায়দের পাশে আপনি কতটা থাকতে পারছেন। শুধু একা একা ভালো থেকে ভালো মানুষ হয়ে ওঠা যায় না। সবাইকে নিয়ে ভালো থাকতে হয়।
  • সারাদিনে অনেকগুলো ভালো কাজ করার চেষ্টা করুন। খারাপ কাজ থেকে বিরত থাকুন। এতে করে নিজে ভালো থাকবেন এবং অন্যরাও আপনার কাছ থেকে ভালো কাজ শিখে নিতে পারবেন।
  • আমাদের অনেকেরই বাজে অভ্যাস রয়েছে। আপনার বাজে অভ্যাসগুলো নির্ণয় করুন। যেসব বাজে অভ্যাস অন্যদের আঘাত করে সেগুলো বাদ দিন সবার আগে। এরপর সব বাজে অভ্যাস ঝেড়ে ফেলে সুস্থ অভ্যাস গড়ে তুলে অন্যের কাছে অনুকরণীয় হয়ে উঠুন। তাহলে মর্যাদা লাভ করতে পারবেন।
  • আপনার চাইতে নিচের পদের লোকদের সাথে যথাযথ আদবের সাথে কথা বলুন। একজন ব্যক্তি রিকশা চালায় বলেই তাকে তুই করে বলতে হবে, বা বাসার কাজের মানুষটি আপনার থেকে বয়সে বড় হলেও কাজের মানুষ হয়েছেন বিধায় তাঁকে অপমান করে কথা বলার অধিকার আপনি রাখেননা। যিনি নিজের চাইতে ছোট পদের মানুষদের সাথে ভালো আচরণ করতে পারেন না, তিনি কোনোদিনই একজন ভালো মানুষ হতে পারেন না নিজের মর্যাদা ধরে রাখতে পারেন না।
  • অন্য ব্যক্তির ব্যক্তিগত বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা থেকে দৃঢ়ভাবে বিরত থাকুন। মনে রাখবেন, আপনার নিজেরও ব্যক্তিগত একটি জীবন আছে যেখানে অন্যলোকের হস্তক্ষেপ আপনার পছন্দ হবেনা। যদি তাই হয় তবে অন্যের ব্যাপারে কেন নাক গলাতে যাবেন?
  • আপনার কোনো কর্মকাণ্ড বা ভুলের কারণে অন্য কেউ যদি আঘাত পায় তাহলে দেরি না করে তার কাছে ভুল স্বীকার করুন। ভুলের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করার মধ্যে দোষের কিছু নেই। মানুষ যখন অতিরিক্ত আত্মতুষ্টিতে ভোগে তখন ক্ষমা প্রার্থনার কথা ভুলে যেতে পারে। এটা অনেকটা কল্পরাজ্যে বসবাসের মতো। কিন্তু বাস্তব পৃথিবীতে মানুষের ভুল হবে এবং সে ভুলের কথা স্বীকার করাই ভালো।
  • অপ্রয়োজনীয় ও ফালতু কথা বলবেন না এবং অন্যদেরকেও বলতে উৎসাহিত করবেন না। অপ্রাসঙ্গিক কথা বা মন্তব্য জীবনের সব ক্ষেত্রেই আপনার ব্যক্তিত্বকে খাটো করে আপনার মর্যাদাকে খাটো করে। নিজেকে ভালো রাখতে, ভালো একজন মানুষ হতে নিজের মর্যাদা ধরে রাখুন।
  • রপ্ত করুন সুন্দর করে কথা বলার অভ্যাস। আপনি সুন্দর করে গুছিয়ে কথা বললে যে কেউ আপনার কথার মূল্য দিতে বাধ্য।আর অবশ্যই সকলকে সম্মান দিয়ে কথা বলুন।
  • কথা বলার সময় সুন্দর সুন্দর শব্দ চয়ন করুন, এছাড়াও নিজের মাতৃভাষাকে ভালোভাবে জেনে শব্দভাণ্ডারকে সমৃদ্ধ করুন। অন্য ভাষায় কথা বলার আগে নিজের ভাষা সম্পর্কে জানুন। যে ব্যক্তি নিজের ভাষা ও সংস্কৃতি সম্পর্কে জানেন না, তিনি কোনোদিনই ভালো একজন মানুষ হতে পারেন না।
  • অপরের কৃতিত্বের জন্য প্রশংসা করতে শিখুন। তাদের অর্জনকে হিংসা করতে যাবেন না।
  • যেকোনো বিষয়েই ধন্যবাদ বলার চেষ্টা করুন। ধন্যবাদ এমন একটি শব্দ যা আপনাকে অন্যের কাছে ভালো এবং সৎ মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করবে। এ কারণে ছোট ছোট বিষয়গুলো থেকে বড় বিষয়গুলোতেও ধন্যবাদ বলার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

একটু চেষ্টা করেই দেখুন, খুব কঠিন কিছু কিন্তু নয়। কিন্তু এই ব্যাপার গুলোই আপনাকে করে তুলবে ভালো একজন মানুষ হতে এবং নিজের মর্যাদা ধরে রাখাতে।

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY