ব্যাংককে একদিনে যে ১০টি জায়গা ঘুরে দেখতে পারবেন

0
343
ব্যাংককে একদিনে যে ১০টি জায়গা ঘুরে দেখতে পারবেন
5 (100%) 3 votes

ব্যাংককে একদিনে কি কি করতে পারেন।

আপনার কাছে আছে মাত্র একদিন সময় এবং সাথে একটি ভ্রমনের তালিকা যেখানে ভ্রমনের সুযোগ আপনি হাতছাড়া করতে চান না? ব্যাংককে এই ১০ টি জায়গা আছে যেখানে আপনি এই এক দিনেই ঘুরে আসতে পারেন। মৌসুমি পর্যটকেরা বলেন, “Bangkok is An All-Out Attract On The Senses” অর্থাৎ, ব্যাংকক হচ্ছে এক অদ্ভুত এবং বিস্ময়কর আকর্ষণের সমাহার”। আর এগুলো অপেক্ষা করছে পর্যটকদের জন্য। আসুন জেনে নেই সেই জায়গা গুলোর ব্যাপারে-

১। গ্রান্ড প্যালেস এবং ওয়াট প্রাকো প্রাসাদ (পুরনো শহর):

grand-palace

১৭৮২ সালে প্রতিষ্ঠিত হবার পর থেকে প্রায় ১৫০ বছর ধরে থাই রাজার এই বাড়িটি রাজকীয় আদালত এবং সরকারের প্রশাসনিক আসন হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে যার সুন্দর স্থাপত্য পর্যটকদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়েছে। ১৫শ শতাব্দী থেকে ওয়াট ফ্রা প্রাকো মন্দিরে ফ্রা কাওে মরাকট বা (পান্না বুদ্ধ) অত্যন্ত সম্মানিত। বুদ্ধ’র ভাবমুর্তি পান্না খচিত পাথরে নিখুঁত ভাবে তুলে ধরা হয়েছে।

২। নদী তীরবর্তী খলং ট্যুরঃ

bangkok-klongs-tour

ফেরির অতিরিক্ত ভীড় ভুলে যান। ভুলে যান পর্যটক দলবল, অস্বাভাবিক বেশি দামের জিনিসপত্র এবং টাকা তৈরির হেঁয়ালি। বাস্তব অর্থে, ব্যাংককের মানুষ গুলি কিভাবে বেঁছে আছে এই অলংকার বহুল কুঁড়েঘর গুলোতে, পুরনো কাঠের ঘরে এবং জীর্নশীর্ন ভাবে এখন ও বাস করে যাচ্ছে জানতে হলে ঘুরে আসুন ব্যাংকক থনবুরি খলং।

৩। ওয়াট অরুণ (ডন এর মন্দির) রিভারসাইডঃ

wat-arun-bangkok

ওয়াট অরুণ এর হৃদয়স্পর্শী দৃশ্য দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মধ্যে সবচেয়ে স্বীকৃত ও অন্যতম। প্রাচীন খেমের শৈলী মধ্যে ১৯ শতকের প্রথমার্ধে নির্মিত, বৌদ্ধস্তূপটি চকচকে চীনামাটি দারা পুষ্পশোভিত সুসজ্জিত। ইহার সৌন্দর্য ছাড়াও, ওয়াট অরুণকে রাট্টানাকসিন (Rattanakosin) সময়কাল জন্ম এবং আয়ুট্টহায়া (Ayutthaya) কাল পতনের পর পরবর্তী নতুন রাজধানী প্রতিষ্ঠার নিদর্শন হিসেবে দেখা হয়।

৪। চায়না টাউন বাজারঃ

chinatown

চায়না টাউন বাজার বা চীনা পাড়া বাজার ব্যাংককের খাবারের জন্য প্রসিদ্ধ। পুরনো বাজারে আপনি খুঁজে পাবেন সুলভ মূল্যে কিছু অত্যন্ত মজাদার খাবার। এখানে পাবেন বিখ্যাত পাখি নীড় স্যুপ, পিকিং হাঁস, অতি সুস্বাদু রোস্ট চেসনাট যা আপনার স্বাদকে শুধু বাড়িয়েই দিবে না এগুলো দেখতে এতই সুন্দর যে আপনার চোখকেও পরিতৃপ্তি প্রদান করবে।

৫। ছাঁদ থেকে সূর্যাস্ত উপভোগের সংমিশ্রণ শের্থন-শুখুম্ভিট-শিলম-শ্যামদেশ-নদী তীরবর্তীঃ

roof-view

সূর্যাস্ত যাবার পর সারাদিন ক্লান্তি দূর করার জন্য এই হোটেলটি খুলে দেয়া হয়। ব্যাংককের সূর্যাস্ত দৃশ্য উপভোগ করার জন্য পর্যটকদের টিকেট এর প্রস্তাব দিয়ে থাকে। এর উচ্চতা থেকে শহরের তাড়াহুড়া এবং ছুটাছুটির গুন গুন শব্দ অনুভুত হয় যখন আকাশের ঝিলিমিলি দিগন্ত মনের ভিতর রোম্যান্স এর প্রেক্ষাপট সৃষ্টি করে।

৬। এশিয়ান নদী সম্মুখ (নদী পার্শ্ববর্তী স্থান):

asiatique-riverfront

এশিয়ান শহরগুলির মধ্যে সফলভাবে সম্মিলিত দুটি সবচেয়ে জনপ্রিয় শপিং অভিজ্ঞতার স্থান, একটি রাতের বাজার এবং একটি শপিং মল। শাফান টাক্সিন বিটিএস স্টেশন থেকে ১০ মিনিট দূরে আন্তর্জাতিক বাণিজ্য বন্দর ১৫০০টি বুটিক এবং ৪০টি রেস্টুরেন্ট সঙ্গে একটি বিশাল প্রতিরূপ গুদাম ঘরে রুপান্তরিত হয়েছে। বিকেল ৫ ঘটিকা থেকে খোলা থাকে, একটি সন্ধ্যা এখানে ব্যয় করা কোন সমস্যা না। আপনি উপভোগ করতে পারেন বুটিক ব্রাউজিং, নিজের জন্য উপহার অথবা অন্যকিছু; যদি আপনি কিছু খেতে চান তাও এখানে পাবেন এবং আর যদি এই বিনোদন যথেষ্ট না হয়, তাহলে আরো পাবেন রাত্রিকালীন সঞ্চালিত অনুষ্ঠানগুলি, ক্যালিপ্সো কচি সরাই এবং আরো অনেক কিছু, এটি একটি ক্লাসিক থাই পুতুলনাচ।

৭। সই রাম্বুত্তির খাওসানঃ

khao-san-road-shopping

পারাল্লেল থেকে খাওসান, রাম্বুত্তির আপনাকে দিবে ব্যাংকক আকাশচুম্বী অট্টালিকা পুর্ববর্তী জীবনের অসাধারন অনুভুতি। সড়ক গুলিকে লেয়াফ্য বানইয়ান গাছ ছায়ায় আর্বৃত করে রেখেছে এবং আধুনিক জীবনযাত্রা না থাকা সত্ত্বেও কিছু মানুষ বিখ্যাত রাস্তাগুলির থেকে এখানে জীবন যাপন করাকে বেছে নিয়েছে।

৮। সমুদ্র জাহাজে সান্ধ্য ভোজনঃ

wan-fah

এখানে সূর্যাস্তের সময় চাও ফারায়া নদীর জাদু অনুভব করুন। যখন আকাশ সোনালী রঙ থেকে গোধূলি যাচ্ছে, নদীতীরের জীবন ধীরগতিতে নেমে যাচ্ছে এবং এর সৌন্দর্য অন্য মাত্রা নিয়ে যায়। ডিনার ক্রুজে আরোহণ এর জন্য সেগুন কাঠের নৌকা বা বিলাসবহুল ইয়ট থেকে উপভোগ করুন মুক্ত আকাশের নিচে এবং দেখুন চাও ফ্রায়া সঙ্গে ওয়াট অরুণ এর প্রতিমা সাফেন ভুটস্‌ এর শক্তিশালী শিল্প কারখানার সারি এবং স্বাভাবিক মাধুর্যে পূর্ণ রাজ প্রাসাদের রেখাচিত্র।

৯। সই কাউবয় (রাখাল বালক) সুখাউম্ভিটঃ

soicowboy

সই কাউবয় (রাখাল বালক) নামকরণ করা হয় যখন থেকে আফ্রিকান-আমেরিকানদের কাউবয় টুপি পরিধানের পর থেকে যারা প্রথম এখানে বার খুলেছিল ১৯৭০ শতকের প্রথম দিকে, এই গণিকাপল্লিটি আরাম করা, পাটপং বা নানা প্লাজার চেয়ে ভ্রাম্যমাণ আনন্দমেলা। রাস্তার মধ্যে নিয়ন লাইট এর আলোর ঝলকানি দিয়ে মূলত মধ্য বয়সী পূর্বসূরী, জাপানি এবং পশ্চিমা পর্যটকদের স্বাগত জানান হয় এবং অনেক মেয়েরা একত্রে চিৎকার করে বলে হ্যালো, স্বাগতম!

১০। আরসিএ রাচাদাপিসেক-এ অংশগ্রহণঃ

rca

ব্যাংককের বৈদ্যুত্যিক নিশি দৃশ্য বিশ্বের এক নম্বর সেরা হিসাবে মনোনিত হয়েছে। অনেক ফাটকামূলক বার এবং ক্লাব প্রথম দিন থেকে পরিবর্তিত হয়েছে। যেখানে সই কাউবয়, পাটপং এবং নানা পটভূমি ধীরে ধীরে বিবর্ণ সময়ের মধ্যে, আরসিএ সুখুম্ভিট ১১ এবং থংলর সূর্যাস্তের পর হাজির হয় সবচেয়ে বেশি কোলাহলপুর্ন স্থানে যেখানে আন্তর্জাতিক ডিজে তাদের আধুনিক সব সুর দিয়ে মাতিয়ে তুলে।

এই হল ব্যাংককের ১০ টি স্থান যা আপনি একদিনেই ঘুরে শেষ করতে পারবেন।

Saima Sultana

Saima Sultana

Sayma Sultana was born in 1990 and Completed her BBA & MBA Program on Finance department from Presidency University. She loves books & magazines. Amazing side of her she likes new trends and take it as challenges. She spending her idle time by listing songs and watching move and during holiday she travel to new place to discover unknown place, food and people.
Saima Sultana

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY