ব্যবসায়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পাওয়ার উপায়

0
375
ব্যবসায়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পাওয়ার উপায়
5 (100%) 4 votes

প্রতিটি ব্যবসা, বড় হোক বা ছোট, প্রতিযোগীদের থেকে নিজেকে আলাদা করার জন্য তার ব্যবসায়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ অবশ্যই দরকার। বর্তমানের আক্রমনাত্মক ব্যবসার জগতে, বিশেষত আজকের অর্থনীতিতে, প্রত্যেকটি ছোট বড় সুবিধা আপনার ব্যবসাকে উচ্চ পর্যায়ে নিয়ে যেতে সহায়তা করবে। আর কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পেতে হলে অবশ্যই কৌশলগত পরিকল্পনা, ব্যাপক গবেষণা এবং মার্কেটিং এ বিনিয়োগ প্রয়োজন হবে। আসুন জেনে নেই বিস্তারিত-

ধাপ- ১ আপনার ব্যবসাকে পরীক্ষা করুন

আগে জানুন কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ মানে কি

কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ এর অর্থ হল একটি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা। মানে আপনার কাছে এমন কিছু আছে যা আপনার প্রতিযোগী গ্রাহককে দিতে পারছে না কিন্তু আপনি পারছেন। এটি এমন একটি ফ্যাক্টর যা অন্যদের থেকে আপনার ব্যবসাকে আলাদা করে তুলবে এবং গ্রাহকদেরকে আপনার প্রতিযোগীদের নয় বরং আপনার প্রোডাক্ট পছন্দ করতে সহায়তা করবে। একটি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা ছাড়া ব্যাবসাকে কাস্টমারের নিকট অতুলনীয় করে তোলার আর কোন পদ্ধতি নেই।

প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা এমন একটি উপায় যার মাধ্যমে আপনি আপনার গ্রাহকদের জন্য এমন উচ্চমান তৈরি করতে পারেন যে আপনার প্রতিযোগীদের করতে পারে না। এটি হতে পারে কম রেট, দ্রুত সেবা, ভাল গ্রাহক সেবা, অবস্থান, গুণগত মান বা আরো অন্যান্য অনেক কারণের জন্য ও হতে পারে। আপনার ব্যবসার শক্তি এবং আপনার প্রতিযোগীদের বিশ্লেষণ এর মাধ্যমে আপনার প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা তৈরি করতে পারেন এবং সিদ্ধান্ত নিন আপনি সেই সুযোগগুলো কিভাবে ব্যাবহার করবেন।

আপনার ব্যবসার অনন্য শক্তি গুলো পরীক্ষা করুন

আপনার ব্যবসার শক্তি পরীক্ষার মাধ্যমে আপনি জানবেন যে কোন এরিয়াতে আপনি আপনার প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা তৈরি করতে পারবেন। নিজেকে জিজ্ঞেস করুন, কেন গ্রাহকরা আপনার কাছ থেকে কিনবে। বাজারে তো আরও পন্য আছে। এই প্রশ্নের উত্তর টিই আপনাকে বুঝতে সহায়তা করবে যে কোন সেবাটি আপনি তাদের প্রস্তাব করবেন। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনার কোন চাইনিজ রেস্টুরেন্ট থেকে থাকে তাহলে রেস্টুরেন্টের খাদ্যের মান, অবস্থান অথবা ডেলিভারি সেবার উচ্চ গতি গ্রাহককে আপনার প্রতিযোগী থেকে আপনাকে নির্বাচন করতে সহায়তা করতে অবদান রাখতে পারে। এছাড়াও আপনার গ্রাহকদের সরাসরি জিজ্ঞেস করতেও ভয় পাবেননা। আপনি একটি জরিপ করতে পারেন তাদের মাধ্যমে। এই জরিপের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন যে কেন তারা আপনার রেস্টুরেন্ট এ আসে। আপনার রেস্টুরেন্ট এর কি ভাল সেগুলো উন্নত করা বা কি খারাপ লাগে তাদের সে সকল জিনিষগুলোও জেনে সেগুলো অতিক্রম করতে হবে।

আপনার প্রতিযোগীদের বিশ্লেষণ করুন

আমরা আগেই জেনেছি ব্যবসায়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পেতে আপনাকে এমন কিছু গ্রাহকদের অফার করতে হবে যা আপনার প্রতিযোগীরা দিতে সক্ষম নয়। অতএব, আপনাকে জানতে হবে আপনার প্রতিযোগীরা গ্রাহকদের কি দিতে পারছে আর কি পারছে না। আপনার প্রতিযোগীদের পণ্য, সেবা, দাম, অবস্থান এবং মার্কেটিং সম্পর্কে তথ্য নিন এবং ভাবুন। তারপর, যে সব কারণে একটি গ্রাহক আপনাকে নির্বাচন করতে পারে তার একটি তালিকা তৈরি করুন। সেই তালিকার সাথে আপনার দেয়া সুবিধা গুলো তুলনা করুন। কী শক্তিগুলো আপনার আছে কিন্তু আপনার প্রতিযোগীর যা নেই সেগুলো ও জেনে যাবেন। সেটি জানতে পারলেই আপনি আপনার পথটি বাছাই করে নিতে পারবেন।

বিজনেস ইনফরমেশন গিভেন কোম্পানি

এমন একটা কোম্পানির সাথে যোগাযোগ করুন যারা আপনাকে কাস্টমার সম্পর্কে ধারনা দিবে। তারা আপনার টার্গেট মার্কেট কে জানবে এবং বিশ্লেষন করবে। এবং আপনার সকল প্রয়োজনীয় তথ্য আপনাকে দিবে। ফলে আপনার কাজ সহজ হবে।

ধাপ- ২ কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ তৈরি করবেন যেভাবে

আপনার মূল শক্তিগুলো পর্যালোচনা করে দেখুন

এর আগে তো আপনার শক্তিগুলো জেনেছেন এবার একবার একটি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা তৈরি করার জন্য আপনি আপনার মূল শক্তিগুলোকে বিভিন্ন কৌশলে বাজারে পর্যালোচনা এবং ব্যবহার করে দেখুন। উদাহরণস্বরূপ, যদি আপনি পর্যালোচনার মাধ্যমে জেনে থাকেন যে পণ্যের মানের পরিপ্রেক্ষিতে আপনি শক্তিটি পেয়েছেন তাহলে আরও চমৎকার মান এবং দ্রুত পন্য ডেলিভারের মাধ্যমে সেই শক্তি ধরে রাখতে পারেন।

খরচ কমাতে হবে

কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পেতে বিভিন্ন দিক আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে। আপনি যদি চান যে কাস্টমারকে কম দামে অধিক মান সম্পন্ন পন্য দিবেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে আপনার অভ্যন্তরীণ খরচ কমাতে হবে। খরচ কমানো ও প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা লাভ করা ব্যবসার একটি কৌশল। সব বাজারেই মূল্য সংবেদনশীল (প্রাইস সেন্সিটিভ) ভোক্তা আছে যারা কম মুল্যে পন্য বা সেবা চায়। এবং এর ফলে আপনি তাদের কে ও আপনার প্রতিযোগীর তুলনায় কম মূল্যে আপনার পণ্য বা সেবা দিতে সক্ষম হচ্ছেন। কিন্তু কিভাবে কমাবেন অভ্যন্তরীণ খরচ।
জেনে নিন সেটিও-

  • আপনার প্রডাকশন প্রসেস নিয়ে গবেষনা করুন

    এর মধ্যে সাপ্লাইয়ার থেকে পন্য ক্রয়, আপনার কর্মীরা কিভাবে আপনার পণ্য উৎপাদন করছে অথবা কিভাবে আপনার পন্য বিক্রি করা হচ্ছে এ সব কিছুই অন্তর্ভুক্ত। প্রযুক্তি থেকে ও খরচ কমান। বিভিন্ন যন্ত্রপাতির অযথা ব্যবহার কমান। মেটারিয়ালস এর অপচয় রোধ করুন। পরীক্ষা করুন কিভাবে আপনার কর্মীরা কাজ করছে এবং পাশাপাশি নিশ্চিত হোন তারা কোন সম্পদ নষ্ট করছেনা।

  • সেবার উপর ফোকাস করুন

    আপনার নির্দিষ্ট বাজারে, সেবা এমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ফ্যাক্টর যা আপনাকে আপনার প্রতিযোগীদের আলাদা করতে সক্ষম। কারন আপনি যদি কাস্টমারকে ভাল সেবা দিতে পারেন তখন কাস্টমার আপনার কাছেই
    আসবে। আপনার পণ্য এবং সেবার পার্থক্য নির্ণয় করুন। আপনি আপনার প্রতিযোগীদের থেকে একটি অথবা আরও বেশি বাজারজাত বৈশিষ্ট্যাবলী সেট করুন। তারপর সে বৈশিষ্ট্যগুলো মার্কেট করার জন্য সেগমেন্ট খুঁজে বের করুন এবং সেই সেগমেন্ট অনুযায়ী আপনার পন্য বা সেবা প্রদান করুন।

অন্য কোম্পানীর সঙ্গে অংশীদারি জোট গঠন করুন

স্বাভাবিকভাবে হতেই পারে যে আপনার এমন কিছু দরকার যা আপনার কাছে নেই কিন্তু অন্য কোম্পানির আছে। আর আপনি জানেন যে আপনারা অংশীদার হলে অনেক সহজেই কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পাবেন। তাহলে আর দেরি কেন। অন্য কোম্পানীর সঙ্গে একটি অংশীদারিত্ব বা জোট গঠনের চেষ্টা করুন। উদাহরণস্বরূপ, সনি এবং র‌্যাংগস দুটো আলাদা কোম্পানি এক হয়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পেয়েছে।

ধাপ- ৩ কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ মেইন্টেইন

কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ তো পেয়ে গেলেন এবার জেনে নিন এটাকে মেইন্টেইন করবেন কিভাবে-

  • যে সকল কাজ গুলো আপনি করে এই সুবিধা পেয়েছেন সেগুলো যেন আপনার প্রতিযোগীরা আপনার থেকে অধিক না করতে পারে সেদিকে লক্ষ্য রাখবেন।
  • একবার আপনি একটি প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা লাভ করে ফেললে আপনার কাজ কমপ্লিট কিন্তু সেই সফলতা ধরে রাখতে হবে আপনাকে ক্রমাগত মূল্য, পণ্য বৈশিষ্ট্য এবং মার্কেটিং এর মাধ্যমে। আপনার প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা বজায় রাখার জন্য চেষ্টা করতে হবে। যদি সুবিধা পাওয়ার পর আর সেগুলো লক্ষ্য না করেন তাহলে আবার সেটা আগের জায়গায় ফিরে আসতে সময় লাগবে না।
  • কম্পিটিটরদের সবসময় খোঁজ খবর নিবেন ক্রমাগত রিসার্চ করবেন। তাদের ওয়েবসাইটের আপডেটগুলো দেখুন, তাদের মেইলিং লিস্ট পেতে চেষ্টা করতে পারেন এবং তাদের নতুন পণ্য ঘোষণার পাশাপাশি মূল্য পরিবর্তনের তালিকাটি ও আয়ত্তে রাখবেন।
  • আপনার গ্রাহকদের চাহিদা এবং প্রয়োজনকে গ্রহন করুন। অনলাইন সার্ভে এবং গ্রাহক উপদেষ্টা বোর্ড এর মাধ্যমে ঘন ঘন আপনার গ্রাহকদের মতামত জিজ্ঞাসা করুন। আপনার সেলস ফোর্স আপনাকে সেগুলো আপডেট করবে এবং বর্তমান এবং সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছ থেকে ও সেগুলো শুনবে।

সুতরাং উপরোক্ত বিষয়গুলো খুবই প্রয়োজন একটি ব্যবসায়ে কম্পিটিটিভ এডভান্টেজ পেতে হলে। তাই চেষ্টা করে দেখতে পারেন। আশা করি উপকৃত হবেন।

Jannatul Jarin

Jannatul Jarin

Jannatul Jarin is very friendly person and she completed her B.B.A from Daffodil International University in Marketing Major. Besides She was very conscious about fashion trend and beauty. She likes to smile herself and make laugh to others. She also write about online marketing. She is Self-Dependent, hard working and focused.
Jannatul Jarin

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY