লাবন্যতা ধরে রাখার সহজ উপায়

0
451
লাবন্যতা ধরে রাখার সহজ উপায়
5 (100%) 1 vote

কথায় বলে মেয়েদের বয়স বলতে নেই। তবে এখনকার দিনে শুধু মেয়েরাই নয়, পুরুষরাও বয়স নিয়ে যথেষ্ট সচেতন। বয়স ধরে রাখতে মহিলা-পুরুষ উভয়ই একাধিক ভাবনা-চিন্তা করে থাকেন। অনেকে যেমন রূপচর্চায় নজর দেন, অনেকে তেমনই ডায়েট কন্ট্রোল করে বয়স ধরে রাখতে উদ্যোগী হন।

আর কী করলে নিজেকে সুন্দর দেখতে লাগবে, আয়নার সামনে নিজেকে দেখতে দেখতে তা ভেবেই সময় কেটে যায় অনেকের। ইঁদুর দৌড়ের এই বাজারে রূপচর্চা করার মতো সময় অনেকের হাতে থাকে না। তবে যুগের চাহিদায় ছেলে হোক কিংবা মেয়ে, সবাই চান নিজেকে সুন্দর করে তুলতে। এই ভাবনার অন্যতম প্রধান শর্ত কিন্তু নিজের বয়স ধরে রাখা। যেন চল্লিশের কোঠা পেরোলেও আপনাকে কমবয়সী বলেই ঠাহর করে আশেপাশের লোকেরা। আর এটা করতে গেলে পার্লারেই শুধু বিউটি ট্রিটমেন্ট করলে হবে না। বাড়িতেও নিজের খেয়াল রাখা অত্যন্ত জরুরি। কম বয়সে বুড়িয়ে যাওয়া থেকে মুক্তি পেতে বাড়িতেই কিছু হোম মেড পদ্ধতি আপনাকে ব্যবহার হবে।

আর এসবই বেশিরভাগ মানুষ শুরু করেন যখন অনেকটা দেরি হয়ে গিয়েছে। বয়স ধরে রাখতে সবচেয়ে আগে প্রয়োজন সুস্থ ও নিরোগ জীবনযাপন, পরিমিত আহার ও নিশ্চিন্ত ঘুম। স্বাভাবিক উপায়ে আপনার বয়স যেভাবে ধরে রাখবেন এর উপায় নিচে দেয়া হল-

১। শরীরচর্চা করুন
শরীরের বিভিন্ন অঙ্গকে সচল ও সুস্থ রাখতে শারীরিক কসরত করা একান্ত প্রয়োজন। ব্যবহার না করলে কোনও যন্ত্র যেমন বিকল হয়ে পড়ে, তেমনই শরীরচর্চা না করলে শরীর ক্রমেই হাল ছেড়ে দেবে আর তার প্রতিফলন পড়বে আপনার মুখে।

2। ডিমের সাদা অংশ
ফেস প্যাকে ডিমের সাদা অংশ দিলে তা স্কিন টোনিংয়ের কাজ করে। মুখের কোচকানো ভাব কমিয়ে ত্বকের উজ্জ্বলতা বাড়ায়। আপনি চাইলে ডিমের সাদা অংশের সঙ্গে কয়েক ফোঁটা লেবুর রস ও গ্লিসারিন মিশিয়ে মাখতে পারেন। পনেরো মিনিট রেখে ঠান্ডা জলে ধুয়ে নিন। তাতেই বেশ কাজ হবে।

৩। দুধ
বার বাড়িতেই দুধ কমবেশি খাওয়া হয়। রান্না ছাড়াও চা করতে বা বাচ্চাদের খাওয়াতেও আমরা দুধ কিনি। নিয়মিত দুধ খাওয়া ছাড়াও এটি আপনি ত্বকে লাগাতে পারেন। এর মধ্যে ক্যালশিয়াম, ফ্যাট ইত্যাদি রয়েছে যা ত্বকের উপযোগী।

৪। গাজর
গাজরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যা ত্বকে লাগালে বয়সকে ধরে রাখতে সাহায্য করে। গাজর ধুয়ে, সেদ্ধ করে বেটে নিয়ে তাতে মধু ও হলুদ মিশিয়ে ১৫ মিনিট রেখে গরম জলে ধুয়ে ফেলুন। দারুণ ফল পাবেন।

৫। শশা
ত্বকের যত্ন নিতে শশার মতো অব্যর্থ কিছু আর হয় না। চোখের কালো দাগ মেটাতে হোক বা ত্বকের ঔজ্জ্বল্য বাড়ানোই হোক, শশা একেবারে মোক্ষম বস্তু।

৬। মধু
মধুর গুণগান গেয়ে শেষ করা যাবে না। ত্বকের যত্ন নিতে মধু অপরিহার্য। ত্বকের বয়স ধরে রাখাা, ঔজ্জ্বল্য বাড়ানো, পোড়া দাগ তোলা, সবকিছুতেই আপনি মধু ব্যবহার করতে পারবেন।

mid-age-1

৭। গ্রিন টি
মেদ ঝরাতে অনেকেই গ্রিন টি খাওয়ার পরামর্শ দেন। তবে অনেকেই জানেন না গ্রিন টি-তে রয়েছে এমন উপাদান, যা বয়স ধরে রাখতে বিশেষ সাহায্য করে। এর মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ত্বকের বিশেষ সহায়ক। এক কাপ গরম জলে দুটি গ্রিন টি ব্যাগ দিয়ে সেটি ঠান্ডা হলে সেটি ত্বকে লাগান। আপনি চাইলে সেটি ডিপ ফ্রিজে রেখে আইস-কিউব বানিয়েও সেটি মুখে মাখতে পারেন, ভীষণ কাজে দেবে।

৮। টক দই
এই উপকরণটিও ত্বকের বিশেষ সহায়ক। এটি ত্বককে ময়শ্চারাইজ করতে সাহায্য করে। প্যাকের মধ্যে মিশিয়ে তো মাখবেনই, এমনকী শুধু দই গুলিয়ে নিয়ে ত্বকে মাখলেও ফল পাবেন।

৯। পানি
এই জিনিসটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সুস্থ থাকুন বা সুন্দর, পানি আপনার সর্বক্ষণের সঙ্গী। বেশি পরিমাণে পানি খান। নাহলে কোনও ত্বক পরিচর্যাই আপনার কাজে দেবে না। ত্বক শুকিয়ে যাবে যা আপনার সৌন্দর্যকে কমিয়ে দেবে।

১০। ইতিবাচক চিন্তা করুন
নেতিবাচক চিন্তা চেহারায় বয়সের ছাপ ফেলে। অযথা রাগ করবেন না। রাগ স্বাস্থ্যের পক্ষে মোটেই ভাল নয়। গল্পের বই বা পুরনো কোনও লেখা পড়ুন। পছন্দের গান চালিয়ে গুনগুন করুন। আর সবসময় শিরদাঁড়া সোজা রেখে দাঁড়িয়ে থাকার অভ্যাস করুন। কুঁজো হয়ে একদমই হাঁটবেন না।

১১। রোজ নিয়ম করে ঘুমান

অন্তত আট ঘণ্টা ঘুমাতেই হবে। রেড মিট খাওয়াটা ছেড়ে দিন। চিকেন খেলে মাঝে মধ্যে খান। কিন্তু খেতে হবে প্রচুর শাক সবজি। ব্যায়াম না করে রোজ নিয়ম করে আধা ঘণ্টা হাঁটুন, নইলে মুটিয়ে যেতে পারেন। মনে রাখবেন, মুটিয়ে যাওয়া মানেই কিন্তু নিজেকে বয়সি করে তোলা।

১২। টোনার ব্যাবহার করুন
প্রতিদিন মুখ ধোয়ার পর অবশ্যই টোনার ব্যাবহার করুন। কারন টোনার আপনার মুখে ময়লা এবং তেল গোড়া থেকে তুলে দিতে সাহায্য করবে যা সাবান অথবা ফেসওয়াশ সবসময় পারে না। একটু তুলার বল নিয়ে এতে টোনার ভিজিয়ে মুখে হালকা করে ঘষে ঘষে ময়লা তুলে নিন। বিশেষ করে কপাল এবং নাকের আশেপাশের জায়গাগুলোকে কখনো বাদ দেবেন না। কারন ওইসব জায়গায় তেল এবং ময়লা বেশী জমে থাকে।

১৩। প্রতিদিন অবশ্যই ত্বককে মশ্চারাইজার করুন
প্রতিদিন সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার আগে এবং রাতে মুখ ধোয়ার পরে অবশ্যই মশ্চারাইজার ব্যাবহার করুন। এটি আপনার তকের ড্যামেজকে পূরন করে আপনার মুখে ভাজ পরা থেকে ত্বককে রক্ষা করবে। সকালে বাইরে বের হওয়ার সময় লাইট মশ্চারাইজার যেমন জেল মশ্চারাইজার ব্যাবহার করুন এবং রাতের জন্য ভারী ক্রীম এবং মশ্চারাইজার রেখে দিন। ওহ, আপনার হাতের কনুই এবং ঘাড় এই জায়গাগুলোকে ভুলে যাবেন না। কারন বাইরে বের হলে এগুলোও অনেক শুষ্ক হয়ে যায়।

১৪। সপ্তাহে একদিন স্ক্রাব ব্যবহার করুন
সপ্তাহে একদিন আপনার ত্বকে স্ক্রাব ব্যবহার করুন। কিন্তু স্ক্রাব ব্যবহারের সময় অবশ্যই আপনার ত্বককে জোরে ঘষবেন না। এতে আপনার ত্বকের ক্ষতি হতে পারে। সাধারণত দুই চামচ মধুর সাথে এক চামচ চিনি মিশিয়ে খুব ভালোভাবে প্রাকৃতিক স্ক্রাব তৈরী করা যায় যেটা ত্বকের ময়লা পরিষ্কার করতে খুবই উপকারি। স্ক্রাব মুখে দিয়ে ৭ থেকে ১০ মিনিট মুখে ভালোভাবে ম্যাসাজ করে কুসুম গরম পানিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।

১৫। প্রতিদিন বাইরে বের হওয়ার আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন
আপনার ত্বককে অবশ্যই সুর্যের ইউভি রশ্মি থেকে রক্ষা করুন। এজন্য প্রতিদিন রোদে যাওয়ার আগে অবশ্যই সানস্ক্রিন ব্যাবহার করতে হলে। কারন ত্বক রোদে পুড়লে খুব সহজে মুখে বলিরেখা পড়ার সম্ভাবনা থাকে। তাই বাইরে যাওয়ার আগে সম্পুর্ন মুখে এবং গলার এসপিফ ৩০ যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। এছাড়া মেকাপের ক্ষেত্রে সানস্ক্রিন এবং মশ্চারাইজার যুক্ত ফাউন্ডেশন ব্যবহার করতে পারেন। এতে মেকাপের বেস ও অনেক ভালো হবে।

১৬। মুখে ব্রণ হওয়ার আগেই ওটাকে প্রতিরোধ করুন
সপ্তাহে একদিন আপনার ঘুমানোর বালিশের কাভার অবশ্যই পরিবর্তন করুন। এতে করা আপনার বালিশে লাগে থাকা ব্যাক্টেরিয়া আপনার মুখ ব্রন তপরী করতে পারবে না। ঘুমানোর সময় যদি আপনি হাত মুখের উপর দিয়ে ঘুমান তাহলে এই অভ্যাসটি আজই বর্জন করুন। কারন আপনার হাতে লেগা থাকা তেল আপনার মুখে ব্রণ তৈরী করতে পারে। ঘুমানোর সময় চুল পেছন দিকে দিয়ে ঘুমানোর চেষ্টা করুন। যদি আপনার চুল অনেক লম্বা হয় তাহলে রাতে বেধে ঘুমানোই ভালো। আর বার বার আপনার চুলকে কপালের উপর আস্তে দিবেন না। এতে করে চুলে লেগা থাকা ময়লা আপনার মুখে ব্রন তৈরি করতে পারবে না। সবসময় স্ট্রেস ফ্রী থাকার চেষ্টা করুন এবং প্রতিদিন অবশ্যই রাতে পর্যাপ্ত পরিমান ঘুমের অভ্যাস করুন। এছাড়া প্রতিদিন ৪ থেকে ৫ লিটার পানি পান করুন। এতে ব্রণ আপনার ধারের কাছেও আস্তে পারবে না।

তাই সারাদিনের ব্যাস্ততার পর রাতে এবং ছুটির দিনগুলোতে একটু সময় বের করে ত্বকের যত্ন নিলে আপনি যেমন আপনার মুখের উজ্জ্বলতা অনেক দিন ধরে রাখতে পারবেন এবং মুখে সহজেই বলিরেখা পরা থেকে নিজেকে বাচাতে পারবেন।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY