মনের মানুষের কাছে আকর্ষণীয় হবার উপায়

0
983
মনের মানুষের কাছে আকর্ষণীয় হবার উপায়
5 (100%) 1 vote

পৃথিবীর সব মানুষই তো মনের মানুষের কাছে আকর্ষণীয় হয়ে উঠতে চান। মনের মানুষের কাছে একজন আকর্ষণীয় ব্যক্তিত্ব হয়ে ওঠার আকাঙ্ক্ষা সবারই থাকে। সবাই চান মনের মানুষ তাকে নিয়েই আলোচনা করুন কিংবা তাকে নিয়েই ভাবুক। কিন্তু সবাই কি পারে মনের মানুষের চোখে সবচাইতে আকর্ষনীয় হয়ে উঠতে? নাহ, সবার থাকে না এই যোগ্যতা। চর্চা করে অর্জন করে নিতে হয় মনের মানুষের কাছে আকর্ষণ করার বিশেষ ক্ষমতাটি। বেশ সহজেই আপনি নিজেকে মনের মানুষের কাছে আকর্ষণীয় করে তুলতে পারবেন। আসুন তাহলে জেনে নেয়া যাক মনের মানুষের কাছে সবচাইতে আকর্ষণীয় হয়ে ওঠার অব্যর্থ কৌশল সম্পর্কে।

  • ১। কারো সাথে চোখে চোখ রেখে কথা বললে সহজেই তাকে আকর্ষণ করা যায়। কথা বলার সময় চোখে চোখ রেখে কথা বলে চোখের যাদুতে আটকে ফেলুন মনের মানুষটিকে। চোখে চোখ রেখে কথা বললে আপনার আত্মবিশ্বাস দেখেও মুগ্ধ হবে সে।
  • ২। হাসি হলো চেহারার অলংকার। পৃথিবীর সকল মানুষকেই হাসলে সুন্দর ও আকর্ষনীয় দেখায়। আর তাই মনের মানুষকে আকর্ষণ করার অন্যতম মাধ্যম হলো “ব্যক্তিত্বসম্পন্ন” হাসি। কথা বলার সময় প্রানবন্ত হাসি উপহার দিন তাকে। নিমিষেই আকর্ষণ করে ফেলতে পারবেন তাকে।
  • ৩। মনের মানুষকে আকর্ষণ করার অন্যতম একটি উপায় হলো পরিচ্ছন্ন থাকা। নিজেকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখার চেষ্টা করুন সব সময়। সুন্দর হালকা কোনো সুগন্ধি ব্যবহার করতে পারেন চাইলে। পোশাক পরিচ্ছদেও রাখুন পরিচ্ছন্নতার ছোঁয়া। পৃথিবীতে পরিপাটি সুসজ্জিত মানুষকে পছন্দ করেন সবাই।
  • ৪। মনের মানুষের সাথে চেষ্টা করুন সাবলীল আচরণ করার। অনেকেই কারো সাথে কথা বলার সময় ঘাবড়ে গিয়ে আত্মবিশ্বাস হারিয়ে ফেলেন। আপনি যতই ঘাবড়ে গিয়ে থাকেন না কেন চেষ্টা করুন সেটা কথা বার্তায় প্রকাশ না করার।
  • ৫। আত্মবিশ্বাসী থাকুন। এ জিনিসটি না থাকলে আপনি এক পা ও এগোতে পারবেন না। আবার অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসীও হওয়া চলবে না। কারণ এতে হিতে বিপরীত হতে পারে। সহজাত আচরণ বজায় রাখতে হবে। আপনার সহজাত ও খোলামেলা আত্মবিশ্বাসী আচরণ পছন্দের মানুষের নজর কাড়বেই।
  • monermanus-2

  • ৬। পুরোপুরি নিজের মতো থাকুন। কৃত্রিমতা কারোরই পছন্দ নয়। কথা, আচরণ, ভাবভঙ্গিতে কৃত্রিমতা থাকলে তা সহজেই স্পষ্ট হয়ে ওঠে। আপনার আচরণে এমন ভাব থাকলে তা মনের মানুষটির মনে বাজে ধারণা সৃষ্টি করবে। তার জন্যে নিজেকে বদলে ফেলার পরিকল্পনা করবেন না। আপনি যেমন, তেমনটাই তার নজর কাড়বে। আর এভাবেই তার মনে স্থান করে নেওয়ার চেষ্টা করুন।
  • ৭। মনের মানুষের কাছে সব সময় নিজেকে রহস্যময় করে রাখুন। নিজের কিছু রহস্য পর্দার আড়ালেই রেখে দিন সব সময়। নিজের সব রহস্য উন্মোচন করে ফেললে আকর্ষণ হারিয়ে ফেলবেন। আর তাই কিছু কিছু বিষয়ে নিজেকে রহস্যে ঘিরে রাখুন। নিজের রহস্যময় ব্যক্তিত্বের মাধ্যমে সহজেই আকর্ষণ করতে পারবেন সবাইকে।
  • ৮। সারা দিন কাজের ঝামেলায় হয়তো আপনি অবস্বাদ অনুভব করবেন, ক্লান্ত হয়ে পড়বেন। কারো সঙ্গে হয়তো ভালো করে কথা বলতে মন চাইবে না। কাজের চাপে প্রায় সব সাধারণ মানুষই এমন অভিব্যক্তি প্রকাশ করে থাকে। কিন্তু আপনাকে ভুলে গেলে চলবে না আপনি এই করপোরেট যুগের মানুষ। আপনাকে সর্বদা সদালাপী, সুভাষী ও প্রাণবন্ত থাকতে হবে।
  • ৯। সৌন্দর্যের অন্যতম অনুষঙ্গ হলো চুল। চুল থাকলেই যে আপনাকে সুন্দর লাগবে তা কিন্তু ঠিক নয়। চাই আপনার চেহারার সঙ্গে মানাসই হেয়ারকাটিং এবং হেয়ারস্টাইল। সেই সঙ্গে গোসলের পরে ব্যবহার করতে পারেন শুকনো শ্যাম্পু। চুলকে ঝর ঝরে ও সিল্কি দেখাতে চুল স্প্রে করতে পারেন।
  • ১০। জন্মগতভাবে মানুষের শরীরের একটি ঘ্রাণ বা গন্ধ থাকে। নিজের কাছে সেই গন্ধ বা ঘ্রাণ কিছু মনে না হলেও অন্যের কাছে সেটি উৎকট ও বিদঘুটে অনুভূতির জন্ম দিতে পারে। যা খুবই বিব্রতকর এবং লজ্জাজনক। এমন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়ানোর জন্য আপনার শরীরে সুগন্ধি বা পারফিউম ব্যবহার করতে পারেন।
  • monermanus-3

  • ১১। সৌন্দর্য ফুটে মানুষের ত্বকে। যার ত্বক যত বেশি মোহনীয় তাকে দেখতেও তত বেশি আকর্ষণীয় লাগে। তাই শুষ্ক ত্বককে আর্দ্রতাপূর্ণ করতে আপনার পছন্দমতো ফেসিয়াল ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। ত্বক থেকে তেল চিটচিটি ভাব দূর করার জন্য এয়ার ব্রাশ অথাবা বিশেষ জাতীয় ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। এতে আপনার চেহারায় সতেজতা ভাব চলে আসবে। আপনাকে দেখতেও লাগবে আকর্ষণীয়।
  • ১২। আপনি দেখতে কতটা সুন্দর, তাঁর চাইতে জরুরী নিজেকে আপনি কীভাবে উপস্থাপন করেন। আপনি মোটা হলে এমন কাপড় পরবেন না, যাতে আরও মোটা দেখায়। রোগা হলে নিজেকে একটু মোটা দেখা যায় সেই চেষ্টা করুন। তাই একদম রোগা হবার চাইতে নিজেকে ভরাট শরীরের অধিকারী করে তুলুন। মোটা নারীরা ওজনটা একটু ঝরিয়ে শরীরটা শেপে নিয়ে আসুন।
  • ১৩। আকর্ষণীয় ও আধুনিক পোশাক পরুন। এমন পোশাক পরবেন না যা অশ্লীল, কিন্তু আপনার সৌন্দর্য যেন প্রকাশিত হয় সেটা লক্ষ্য রাখুন।
  • ১৪। সুন্দর ভাবে খান। একই সাথে কিছু ছোট্ট আচরণ অভ্যাস করুন যেগুলো খুবই “কিউট”। মাঝে মাঝে একটু আগ্রেসিভ আচরণ করুন। পুরুষেরা এগুলো খুবই ভালোবাসেন।
  • ১৫। মানুষ চেনা যায় তার বন্ধু দ্বারা। সুতরাং আপনার আশেপাশের বন্ধু বাছাই করতে সবসময় সতর্ক থাকুন। আপনার কাছের বন্ধুগুলো যদি উত্তম চরিত্রের কিংবা ভালো গুনের অধিকার না হয় তাহলে কাঙ্খিত মানুষটি আপনার কাছে আসতেও দ্বিধা বোধ করতে পারে। তাই সতর্ক থাকুন। আপনি যদি আজে বাজে মানুষদের সাথে বন্ধুত্ব করেন তাহলে সে ভাববে আপনিও তাদের মতো হবেন। তাইতো বন্ধুত্ব নির্বাচনের ক্ষেত্রে সতর্ক হবেন সব সময়।
  • ১৬। মেয়েরা অনেক সময় নিজেকে কম বয়সী হিসাবে দেখানোর চেষ্টা করে থাকে। তবে পছন্দের মানুষ খুঁজতে ছেলের সয়ংসম্পূর্ণ মেয়েদেরই বেশি পছন্দ করে। যে মেয়েরা স্বয়ংসম্পূর্ণ তারা আত্মনির্ভরশীল হয়। এখন ছেলেরা বাইরের দিকটাই শুধু না অনেক দিক দেখে পছন্দ করে। সারাজীবনের জন্য জীবন সঙ্গী পেতে চাইলে ছেলেরা স্বয়ংসম্পূর্ণ মেয়ে বেশি পছন্দ করে থাকে।
Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY