মীন রাশির ছেলেদের বৈশিষ্ট্য

0
1538
মীন রাশির ছেলেদের বৈশিষ্ট্য
3.5 (70%) 4 votes

যাদের জন্ম ফেব্রুয়ারি ১৯- মার্চ ২০ এর মধ্যে হয়েছে তারা মীন রাশির জাতক। মীন রাশির ছেলেরা অনেকের কাছে আকর্ষনীয় হয়ে থাকে, তবে খুব কম লোকের কাছাকাছি থাকে। তারা খুব রহস্যময় এবং তাদের অনুধাবন করা খুব ই কঠিন। রাশিচক্রের ১২ তম এবং সর্বশেষ সাইন মীনের প্রতীক হল মৎস। মিথুন রাশির মত মীন রাশির প্রতিকেও দ্বৈত্বসত্তা বিদ্যমান। তাদের রাশির দ্বৈত্বসত্তার কারনেই অনেক সময় এখন একধরনের চিন্তা একটু পরে তা পাল্টে ও যেতে পারে। তার দ্বৈত্ব চরিত্রের কারনে তার সাথে মানিয়ে চলা একটু কঠিন তবে তাদের সম্পর্কে আগে ধারনা নিয়ে নিতে পারলে তাদের বৈশিষ্ট্য বোঝা সহজ।

জ্যোতিষশাস্ত্রে মীন রাশি

এই রাশির অধিপতি গ্রহ বৃহস্পতি।
রাশিচক্রীয় উপাদান- জল
শুভবর্ণ- সোনালী, সাদা, বাদামি এবং হালকা নীল।
শুভ সংখ্যা- ১৭, ৭।
ধাতু- রুপা।
শুভ দিন- বৃহস্পতি ও সোমবার।

মীন ছেলেদের গঠন

মীন রাশির ছেলেরা খুব প্রাণচঞ্চল হয় এবং সেটা তাদের চেহারার মধ্যেই প্রকাশ পায়। মীন রাশির ছেলেদের অনেক বয়স হলেও তারা মনের দিক থেক সবসময় তরুণ থাকে। তারা খুব আশাবাদী হয় এবং যত দিন বেচে থাকে জীবনকে আনন্দময় করে তুলতে চায়। তারা বিশ্বাস করে সর্বদা হাসিখুশী থাকলে শরীর ও মন ভালো থাকে। মীন রাশির সব ছেলেরা এক রকমের হয়না। তবে অধিকাংশ মীন রাশির ছেলেরা এই রাশির গ্রহ দ্বারা পরিচালিত হয়।
• তারা সাধারণত সঠাম দেহের অধিকারী হয়।
• তারা লম্বায় মাঝারী সাইজের হয়ে থাকে।
• তাদের গতিপথ মাধুর্য্যপুর্ণ হয়।
• তাদের চোখের পাপড়ি ঘন থাকার ফলে অনেক সময় ই তাদের চেহারায় ঘুম ঘুম ভাব প্রকাশ পায়।
• সাধারণত তাদের চুল রেশম-কোমল, উজ্জ্বল বা হাল্কা কোঁকড়ানো হয়।

মীন ছেলেদের ব্যক্তিত্ব

মীন রাশির জাতক জাতিকারা কখনো ক্ষমতা ও ধন-সম্পদের পিছনে ছুটে বেড়ায় না। তারা সত্যের অন্বেষণ করে বেড়ায় এবং তারা সমাজের উন্নয়নের জন্য নিজেকে নিয়োজিত রাখে। মকর রাশির ছেলেরা কোন কিছু নেতৃত্ব দেয় না তবে তারা মানুষকে ভালো কিছু করার জন্য উৎসাহিত করে। এ রাশির ছেলেরা কোন সমস্যায় জড়িয়ে পরলে ও নিজেদের শান্ত রাখে। তাদের মনে কৌতূহল প্রচুর। মৎস্য যেমন সমুদ্রের অতলে চলে যেতে পারে তেমনি তারা ও যে কোন কিছুর অতলে যেয়ে তা সম্পর্কে জানার চেষ্টা করে।

মায়াবী

মীন রাশির ছেলেরা খুব বিনয়ী, ভদ্র, উচ্ছ্বাসিত থাকে বলে খুব সহজেই মানুষের কাছে খুব প্রিয় হয়ে উঠে।
• এরা কোন কিছু অনেক দিন ধরে রাখেনা নিজের মধ্যে।
• এরা অনেক কৌতূহলী হয়।
• এরা খুব সহজেই মনের ভাব প্রকাশ করে।
• এদের সবচেয়ে বড় গুণ হল এরা খুব ভালো শ্রোতা হয়।
• মীন রাশির ছেলেরা মানুষের যে কোন বিপদ-আপদে তাদের পাশে দাঁড়ায় এবং সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়। কারন তারা অনেক সেনসিটিভ হয়। অন্যদের সাহায্য করা তাদের একটা সহজাত প্রবৃত্তি।

একাকীত্ব পছন্দ করে

মীন রাশির ছেলেরা কোন কিছু নিয়ে যখন চিন্তায় মগ্ন থাকে তখন তারা একটু একা থাকতে পছন্দ করে।
• তারা ধৈয্য ধরে এবং সমস্ত সমস্যা ওভারকাম করে।
• তারা কোন কিছু করার আগে ভালো করে ভেবে নেয়।
• তাদের কাজ কর্মের মধ্যে সৃজনশীলতার ছোয়া পাওয়া যায়।
তারা যখন একা থাকতে চায় থাকতে দিন। কখনো তাড়া করবেন না। কখনো যদি একা থাকার জন্য তাড়া কোথাও যায় চিন্তিত হবেন না কারন তারা অবশ্যই ফিরে আসবে।

সংবেদনশীল আত্মা

মীনের অতিরিক্ত সংবেদনশীলতা অনেক সময় তাকে বাস্তবতার সামনে হার মানিয়ে দেয়। মীন রাশিরা অনেক সংবেদনশীল স্বভাবের কারনে ড্রাগ এবং এলকোহল এর সমস্ত প্রকার আসক্তি থেকে নিজেদেরকে মুক্তি রাখতে চেষ্টা করে। তবে এ রাশির ছেলেরা মৃত্যু ছাড়া কারো কাছে পরাজয় বরণ করেনা।

রহস্যময় মীন

মীন রাশির ছেলেরা আধ্যাত্মিক টাইপ হয়ে থাকে এবং অজানা যে কোন ব্যাপার সম্পর্কে জানতে খুব আগ্রহী থাকে। আর তাদের আধ্যাত্মিক জীবনে তারা তাদের পৃথিবীকে নতুন করে নিজের মত করে সাজায় এবং সেখানে তাদের ইচ্ছা মত ঘুরে বেড়ানোর সপ্ন দেখে।

• মীন রাশির ছেলেরা অশান্তি সৃষ্টি হতে পারে এমন সব সত্য ব্যাপার গুলো নিজেদের মধ্যে লুকিয়ে রাখে। বিশেষত এই সব অপত্তিকর সত্যিগুলো তাদের পার্টনাদের সাথে কখনোই শেয়ার করেনা।
• তারা নিজের তৈরী করা পারফের্ক্ট একটি স্বপ্নের ভুবনে তাদের লাইফ পার্টনারদের নিয়ে বসবাস করতে চায়। তবে এখানে তাদের কোন প্রত্যশা থাকেনা বরং নিজের পার্থিব এবং আত্মিক প্রশান্তির জন্য সব করে থাকে।
• মাঝে মধ্যে তারা তাদের এই আত্নিক ধ্যান ধারণা থেকে ছিটকে পরে এবং তখন তারা নিজের থেকে পালিয়ে বেড়ায়।
• তারা আধ্যাত্মিক অনুশীলন করে সারা বিশ্ব-জাহানের সাথে নিজেদের সংযুক্ত বোধ হতে পারে।

উপরিউক্ত এই সব বৈশিষ্ট ছাড়াও তাদের মধ্যে আরও একটি বিশেষ গুণ রয়েছে আর তা হল এদের কাজে কর্মে সৃজনশীলতার ছোয়া রয়েছে, যা তাদের শৈল্পিক দক্ষতা বাড়াতে সাহায্য করে।

প্রেমে মীনরাশির ছেলেরা

মীন রাশির ছেলেরা পরিবেশ পরিস্থিতি বুঝে নিজের রোমান্টিকতা প্রকাশ করে। তারা তাদের পার্টনারদের সাথে একটি নির্ভেজাল পরিতৃপ্ত সম্পর্ক গড়ে তুলতে চেষ্টা করে। সে খুশি মনে আপনার সব চাওয়া-পাওয়া পূরণ করবে এবং ভালোলাগার সব বিষয় গুলোকে গুরুত্ব দিবে। এই রাশির ছেলেরা বেশির ভাগ সময়ই একটা ভুল রিলেশনশীপে জড়িয়ে পরে। তবে তারা এই সম্পর্কের মোহ থেকে নিজেদের মুক্ত করতে পারে যখন তারা বুঝতে পারে যে তাদের পার্টনারা তাদের ঠকাচ্ছে। এ রাশির ছেলেরা যদি তাদের পার্টনারদের সাথে আত্নিক এবং বুদ্ধিবিত্তিক সব দিক দিয়ে মিল খুজে পায় তবে তারা তাদের পার্টনারদের সব অতীত ভুল-ত্রুটি গুলো চিরদিনের মত ক্ষমা করে দেয়।

আসুন জেনে নেই মীন ছেলেদের জন্য কোন রাশির মেয়েরা কেমন-

মেষ নারী- মেষ রাশির মেয়েরা তাদের পার্টনারের উপর কতৃত্ব বজায় রাখতে চায়। আর যদি মীন পুরুষ তা মেনে নিতে পারে তাহলে তাদের প্রেম/বিয়ে সফল হয়। তবে এটি মীন পুরুষের জন্য কঠিন।

মিথুন নারী- এদের নিঃসন্দেহে সার্থক জুটি বলা যায়।

কর্কট নারী- মীনের জন্য কর্কট নারী হয় সৌভাগ্যের।

তুলা নারী- তুলা নারীর মন পেতে মীন পুরুষের অনেক সময় লেগে যায়।

বৃশ্চিক নারী- এদের প্রেম, সম্পর্ক, বিবাহ ততটা সুখের হয় না।

মীন ছেলেদের ক্যারিয়ার

মীন রাশিরা সাধারণত অনেক বড় মাপের অভিনেতা অথবা চিত্তবিনেদনকারী হয়। তারা তাড়া যে কোন সেক্টর এ জব করে মজা পায় না। তারা মিডিয়া জগত, টিভি, রেডিও এবং চিত্তবিনেদন মূলক যে কোন সেক্টর এ জব করে মজা পায়। তারা দুঃসাহসিক কর্মকান্ড এবং মানুষকে সাহায্য করার জন্য নিজেকে নিয়েজিত রাখে বলে কর্মক্ষেত্রে তারা খুব তাড়াতাড়ি সাফল্য অর্জন করতে পারে।
• তারা ভ্রমন করতে অনেক পছন্দ করে।
• তারা মানুষের বিপদ-আপদে এগিয়ে আসে।
• তারা যে কোন প্রকার গণসংযোগ এ অংশগ্রহন করে।

ভালোবাসা সহজ তবে তাদের বোঝা কঠিন

মীন ছেলেরা খুব ই রহস্যময় হয়ে থাকে। তাদের বুঝে উঠা কঠিন তবে আপনার জীবনে যদি মীন পুরুষ থেকে থাকে তাহলে আপনি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করতে পারেন। তার আদর্শবাদ ও নিঃস্বার্থতা আপনাকে দুনিয়া সম্পর্কে অন্য এক ধরনের দৃষ্টিকোন দিবে। মীনেরা তাদের প্রেম ভালোবাসা দিয়ে জীবন কে খুব আনন্দের সাথে উপভোগ করে।

Zannatul Ferdous

Zannatul Ferdous

Zannatul Ferdous is a veryfriendly person.She completed her study from University of South Asia in computer science and information technology. She likes to watch cartoon and listening songs. She love to hangout with friends.
Zannatul Ferdous

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY