লেখার দক্ষতা উন্নত করার উপায়

0
606
লেখার দক্ষতা উন্নত করার উপায়
5 (100%) 8 votes

ভালো একটি লেখা লিখতে পারা বেশ কঠিন ব্যাপার। অবশ্য আপনি কয়েকটি বাক্যের মাধ্যমে আপনার চিন্তাধারা প্রকাশ করতে পারেন। “there এবং their” “then এবং than” “you’re এবং your” এগুলোর মধ্যে সঠিক শব্দটির প্রয়োগ আপনাকে জানতে হবে। কিন্তু একটি প্ররোচনামূলক লেখা লিখতে প্রথমেই আপনাকে মৌখিক বিষয়বস্তু তৈরি করতে হবে। এটিকে একটি চ্যালেঞ্জিং কাজ মনে করতে পারেন। যদিও এটি তেমন কঠিন কাজ না। আপনার লেখার দক্ষতা উন্নত করার জন্য বিভিন্ন ছোট ছোট দক্ষতা আয়ত্ত করুন। যেমন- একজন শেফ এর শিখতে হয় কিভাবে টুকরা করে কাটতে হয়, আগুনে ঝলসাতে হয় এবং গ্রিল করতে হয়। তার বুঝতে হবে কিভাবে একটি খাবার নির্বাচন করবে যা একই সাথে পুষ্টিকর এবং স্বাদে ও ভালো হবে। তাকে কিভাবে রুটি তৈরী করা এবং নিঁখুত ভাবে গাজরের ফুল তৈরী করা এসব প্রাকটিস করতে হয়। রান্নার ছোট ছোট দক্ষতাগুলো আমরা বুঝতে পারছি। কিন্তু লেখার দক্ষতাগুলো আমাদের কাছে অস্পষ্ট মনে হচ্ছে। লেখার দক্ষতার জট খোলা ততটা কঠিন নয় যতটা আপনি ভাবছেন। আপনি একের পর এক লেখার অনুশীলন করতে পারেন, যেভাবে একজন শেফ অনুশীলন করে।

কিভাবে একজন শেফ এর রান্নার মতোই আপনার লেখার দক্ষতা অনুশীলন করবেন তার ৯টি কৌশল নিচে দেয়া হল।

প্রত্যেকটি ছোট দক্ষতা গুলো অনুশীলন করাঃ

(১) জানতে হবে কিভাবে একটি ভাল বাক্য লিখতে হয়। একটি চমকদার বাক্য ভালো লেখার প্রধান উপাদান।

(২) আপনার লেখায় আলোচনার মধ্যে প্রশ্ন থাকতে হবে।

(৩) কিভাবে সঠিক শব্দ বাছাই করতে হবে তা চর্চা করুন এবং এমন শব্দ যা আপনার লেখা কে বিস্বাদ করে সেগুলো এড়িয়ে যাওয়া শিখুন।

(৪) এমন সাবলিল ভাবে লিখুন যেন পাঠক প্রতিটি প্যারাগ্রাফ পড়তে স্বচ্ছন্দ বোধ করেন।

(৫) আপনার কন্ঠ দ্বারা পরীক্ষা করুন কোথায় যতিচিহ্ন পরিবর্তন করতে হবে ফলে বাক্যটিতে গতিশীল ছন্দ যুক্ত হবে।

(৬) আপনার বিষয়বস্তুর বর্ণনা দ্বারা লেখার মধ্যে মোহ তৈরি করুন যেন পাঠক আপনার লেখা টি পড়তে চায়।

(৭) লিখার অনুশীলনটা এমন শ্রুতি মধুর হবে যেন পাঠকের মনে তা দীর্ঘকাল অবস্থান করে।

(৮) এমন উপমা দিয়ে লেখা সাজান যেন লেখার মধ্যে বিনোদন তৈরি করা যায়।

(৯) পাঠকের মন ছোট ছোট গল্প দিয়ে নিয়োজিত রাখুন। একজন সুশী শেফ যেভাবে মাছের কাঁটা বাছতে শিখে ঠিক সেভাবে লেখা শিখতে হবে। যত বেশী অনুশীলন করবেন তত বেশী দক্ষতা বাড়বে লেখার ক্ষেত্রে। তাই বেশী বেশী লেখার অভ্যাস রপ্ত করুন।

কিভাবে লিখতে হবে তা শেখার জন্য আপনাকে লেখার সঠিক অভ্যাস গড়ে তুলতে হবেঃ

(১০) আপনার ফোন টাকে সুইচ অফ করুন, ২৫ মিনিটের জন্য টাইমার সেট করুন এবং কাজ শুরু করুন।

(১১) লেখার জন্য সময় নির্ধারন করুন এবং প্রতিদিন একই সময়ে লেখার চেষ্টা করুন।

(১২) প্রতি সপ্তাহে অন্তত একটি বিষয় নিয়ে লেখা প্রকাশ করুন।

(১৩) বিভিন্ন পরিকল্পনা, খসড়া, সম্পাদনা এবং পদ্ধতি থেকে আপনার লেখায় একটি কাঠামো গত প্রক্রিয়া প্রয়োগ করুন।

(১৪) আপনার বিষয়বস্তু বার বার সম্পাদনা করুন কারন একটি লেখার বিষয়বস্তুর প্রতিটি উপাদান সতর্কতার সাথে প্রয়োগ করতে হয়।

(১৫) লেখার বিভিন্ন কৌশল নিয়ে পরীক্ষা করুন, যেমন ব্যবসার বিষয়বস্তু নিয়ে সৃজনশীল লেখা শুরু করুন। আপনার বিষয়বস্তু আরো উন্নত করুন। যেমন আপনার অতিথি যদি ডায়েট করেন তাহলে চকোলেট কেক তাকে প্রভাবিত করবে না। অতিথির যদি এলার্জি থাকে তাহলে তার জন্য চিংড়ি অথবা ঝিনুক রান্না করা বৃথা। সেভাবে পাঠকের জন্য কিছু লেখাও একই ব্যাপার। মাঝারি বা নিম্ন মানের লেখা পাঠক কে বিরক্ত করে। কিন্তু সমৃদ্ধ লেখা পাঠককে ধরে রাখে, তাদের আনন্দিত এবং অনুপ্রানিত করে।

নিম্নলিখিত ৬টি উপায়ে আপনি শ্রোতা কে ধরে রাখতে পারেনঃ

(১৬) আপনি আপনার পাঠককে কিভাবে সাহায্য করতে পারেন তা সহমর্মিতার মাধ্যমে বুঝতে হবে এবং সেভাবেই লিখতে হবে।

(১৭) দৃঢ়তার সাথে আপনার নীতি প্রয়োগ করুন, ফলে আপনি পাঠককে অনুপ্রানিত করতে পারেন আপনার টিপস বাস্তবায়নে এবং আপনার সাথে থাকতে।

(১৮) উদাহরণ সহ বাস্তবসঙ্গত ভাবে পাঠককে পরামর্শ দিন।

(১৯) সমৃদ্ধ বিবরনের মাধ্যমে বিষয়বস্তু কে স্মরণীয় করে রাখুন।

(২০) বিশেষজ্ঞদের মতামত এবং পরিসংখ্যান যোগ করুন আপনার লেখায়।

(২১) লেখা আরো বিকশিত করার জন্য উপযুক্ত তথ্য যোগ করুন আপনার লেখায়। পাঠকরা সাধারনত ধারনা, পরামর্শ, সান্ত্বনা, এবং অনুপ্রেরণার জন্য মুখিয়ে থাকে। উপযুক্ত বিষয়বস্তু পরিবেশন করে তাদের আকাঙ্ক্ষা আরো বাড়িয়ে তুলুন। লেখার জন্য অনুপ্রেরণা খুঁজে বের করুন আমরা কেউই চমৎকার লেখক হয়ে জন্মগ্রহন করিনি।

আমরা শিখতে পারি কিভাবে ভালো লেখক হওয়া যায়ঃ

(২২) কসমোপলিটনের কভারগুলো অধ্যয়ন করুন এবং শিখুন কিভাবে মনোযোগ দখলকারী শিরোনাম লিখতে হয়।

(২৩) সিনেমা সমালোচনা, ক্রীড়া রিপোর্ট এবং উপন্যাসে যে শব্দগুলো আপনার মনোযোগ কাড়ে সেগুলোর প্রতি মনোযোগ দিন।

(২৪) বাচ্চাদের বই পড়ে জানুন কিভাবে একটি বড় বিষয়কে সহজ কথায় আলোচনা করা যায়।

(২৫) কবিতার সংবেদনশীলতা উপভোগ করুন।

(২৬) সরাসরি মেইল এবং বিক্রয় কপির অধ্যয়ন করে প্ররোচনা মূলক লেখার কৌশল বাড়াতে পারেন।

(২৭) আপনি যে কোন জায়গায় অনুপ্রেরণা খুঁজে পেতে পারেন। সুতরাং আপনার প্রতিভার অভাব আছে তা বলা বন্ধ করুন।

আপনার ভাল ধারনা আছে এবং আপনি আপনার শ্রোতাদের অনুপ্রাণিত করতে চান। তাই আজি শুরু করুন লেখা। আমরা অপেক্ষায় আছি আপনার লেখা পড়ার জন্য।
Just Write

Afsana Tabassum

Afsana Tabassum

Afsana completed BSS LLB under national university. She is always helpful to everyone. She loves music very much and loves to read books specially poem. She also writes poem and story. On the other hand she is very conscious about fashion and beauty.
Afsana Tabassum

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY