শাড়ীর সাথে ব্লাউজটি কিভাবে মিলিয়ে পরবেন

0
929
শাড়ীর সাথে ব্লাউজটি কিভাবে মিলিয়ে পরবেন
3 (60%) 2 votes

বাঙ্গালী মেয়েদের মাঝে শাড়ি পড়তে পছন্দ করে না এমন মেয়ে খুজে পাওয়া খুব কষ্টকর ব্যাপার। কারণ শাড়ি বাঙ্গালীর ঐতিহ্যের সাথে জুড়ে আছে। আর আমাদের দেশে বসন্ত বরন, পহেলা বৈশাখ এর মত বারো মাসে তেরো পার্বণ তো লেগেই আছে। এই সব অনুষ্ঠানে মেয়েরা চায় তাদের ঐতিহ্যকে ধরে রেখে সাজতে।

আর এক্ষেত্রে শাড়ির চেয়ে ভালো পোশাক আর হয় না। এসব অনুষ্ঠান ছাড়াও বিয়ে, গায়ে হলুদ এইসব অনুষ্ঠানে শাড়ী ছাড়া যেন চলেই না। আর শাড়ি পরার কথা মনে হলে সবার প্রথমে যে কথাটি মনে হয় সেটা হচ্ছে শাড়ির সাথে মিলিয়ে ব্লাউজটি কেমন হবে। কারন আজকাল এখন আর শাড়ির সাথে মিলিয়ে এক রঙের ব্লাউজ পরা হয় না।

অনুষ্ঠানের ভিন্নতা অনুযায়ী পোশাকের ধরণও অনেক ভিন্ন হয়। যেমন পহেলা বৈশাখ, বসন্ত বরন, পূজা, ১৬ই ডিসেম্বর ইত্যাদি অনুষ্ঠান গুলোতে দিনের বেলায় সুতি শাড়ি অনেক ভালো লাগে। এক্ষেত্রে সুতি শাড়ির সাথে কোয়ার্টার হাতা ব্লাউজ খুব ভালো লাগবে। এতে করে আপনার শরীরের ত্বক রোদ থেকে যেমন রক্ষা পাবে তার সাথে সাথে শাড়িতে সৌন্দর্যও বৃদ্ধি পাবে। কারন কোয়ার্টার হাতা ব্লাউজের সাথে হাতে কাচের চুড়ি পরার মত যায়গা থাকবে।

সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে ফ্যাশনের ধরন যেমন বদলে গেছে সেই সাথে বদলে গেছে শাড়ী পড়ার ধরনও। এখন ব্লাউজের রঙের সাথে সাথে কাটেও অনেক বৈচিত্র্য এসেছে। কখনো ফুল হাতা, কোয়ার্টার হাতা, কখনো শিফনের ফুলতোলা ব্লাউজ আবার কখনো স্লিভলেস। শাড়ীর সাথে কনট্রাস্ট করে বিভিন্ন কাটের ব্লাউজ ইদানিং খুব জনপ্রিয়তা পাচ্ছে। তাই আজ আমরা আলোচনা করব শাড়ীর সাথে মিলিয়ে কেমন হবে আপনার ব্লাউজটি।

অনেকে আবার জামদানী শাড়ী পড়তে অনেক পছন্দ করে। এক্ষেত্রে জামদানি পরলে শাড়ির রঙের সাথে কনট্রাস্ট করে ব্লাউজ পছন্দ করতে হবে। জামদানীর সাথে ইদানীং কাতান এর ব্লাউজ অনেক ভালো লাগে। জামদানির কাজ যদি অনেক গর্জিয়াস হয় সেক্ষেত্রে কাতানের কনট্রাস্ট ব্লাউজ বেশ মানিয়ে যাবে। শাড়িটি এক রঙের হলে তার কাছাকাছি কোনো রঙ পছন্দ করা যাবে না। আবার কিছু রঙ প্রায় সব ধরনের শাড়ির সাথে মানিয়ে যায়। যেমন সোনালী, কালো ইত্যাদি।

সাধারণত বিয়ে বা অন্য বিশেষ কোনো দাওয়াতে শাড়ীটা একটু ভারী হলে বেশী ভালো লাগে। এক্ষেত্রে নেটের শাড়ী হলে স্লিভলেস ব্লাউজও অনেক ভালো লাগবে। তবে বয়সের সাথে মানানসই করে এই স্লিভলেস কাটের ব্লাঊজ পরলে বেশী ভালো লাগবে। সাধারণত টিনএজ অথবা তরুনীদের এই কাটের ব্লাউজ অনেক ভালো লাগে। আবার শড়ী শিফনের অথবা চুনড়ির হলে ছোট হাতা ব্লাউজ বেশী মানাবে।

অনেকে ব্লাউজের সাথে অনেকে বিভিন্ন ধরণের লেইস, ঝুমকা, চুমকি ইত্যাদি কারুকাজ বসাতে অনেক পছন্দ করে। এক্ষেত্রে ট্রেডিশনাল সাজের সাথে হাতায় লেইস বসানো ব্লাউজ ভালো লাগে। আবার ব্লাউজের পেছনে ডিজাইন করতে চাইলে বিভিন্ন ধরনের নকশা লাগাতে পারেন।
এছাড়া বিভিন্ন ধরনের পার্টিতে একটু হালকা ধরনের শাড়ি বেশী আরামদায়ক হয়। এক্ষেত্রে টিস্যু, শিফন অথবা নেট এর হালকা ধরণের শাড়ী বেছে নিতে পারেন। আর এই ধরনের শাড়ীর সাথে শিফনের ফুলতোলা ব্লাউজ, স্লিভলেস অনেক ভালো লাগবে। এর সাথে গলায় হালকা পুথির মালা পড়ে সাজটাকে সম্পুর্ন করে নিতে পারেন।

আপনি এভাবে নিজকে সাজিয়ে যে কোন অনুষ্ঠানে হতে পারবেন অনন্য সুন্দরী । সবার কাছে হতে পারবেন আকর্ষণীয় ।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY