বিশ্বের সেরা ২৫ টি পর্যটক স্থান

0
434
বিশ্বের সেরা ২৫ টি পর্যটক স্থান
5 (100%) 5 votes

কিছুদিন আগে উপদেষ্টাগণ বিশ্বের সেরা ২৫ টি গন্তব্য স্থানের তালিকা প্রকাশ করেছে। তাদের মতে বিশ্ব ভ্রমণকারীদের জন্য এই ২৫ টি স্থান সেরা। এশিয়া, উত্তর আফ্রিকা, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ল্যাটিন আমেরিকা সহ অস্ট্রেলিয়া জুড়ে ও অবস্থান করছে সেরা পর্যটক স্থান গুলো। ইচ্ছে করলে আপনিও ঘুরে আসতে পারেন এই মনোমুগ্ধকর জায়গা গুলোতে। এখন আপনাদের সামনে তুলে ধরব এই সেরা ২৫ টি স্থানের বিবরনঃ

১। মারাকেশ, মরক্কো

কি আছে মারাকেশে যে আপনার এর প্রতি ভালবাসা সৃষ্টি হবে। এই শহর রং ও বস্ত্রের প্রাচুর্যে ভরপুর, চারিদিকে সৌন্দর্যের ছড়াছড়ি এবং অনেক মসজিদ, প্রাসাদ ও চারিদিকে ফুলের বাগান যেটি দেখলে আপনার চোখ জুড়িয়ে যাবে। এখানে আসলে কিভাবে আপনার দিন কেটে যাবে বুঝবেন ই না। তবে উষ্ণতর মাসে অত্যন্ত উচ্চ তাপমাত্রা বজায় থাকে। মারাকেশে নিজের ভ্রমণ অভিজ্ঞতা নিতে আজই ভ্রমণ করুন।

২। সিএম রীপ, কাম্বোডিয়া

অ্যাংকর ওয়াট ধ্বংসাবশেষ প্রবেশদ্বার এর জন্য সিএম রীপ সারা বিশ্ব থেকে পর্যটকদের আকর্ষণ করে এবং সম্প্রতি বিশ্বের পর্যটকদের কাছে পরিদর্শনের জন্য আকর্ষণের অন্যতম হয়ে উঠেছে এই স্থান।

৩। ইস্তাম্বুল, তুরস্ক

ইস্তানবুল এ গিয়ে আপনি পুরাতন সব ঐতিহাসিক স্থান দেখতে পাবেন যেখানে আপনি বর্তমান এ গিয়ে পুরাতন যুগে হারিয়ে যেতে পারবেন। আপনি এই শীর্ষ ইস্তানবুল আকর্ষণ মিস্ করতে না চাইলে এখনই ঘুরে আসতে পারেন।

৪। হ্যানয়, ভিয়েতনাম

এটি ভিয়েতনামের রাজধানী। হ্যানয় সম্পর্কে মোটামুটি সবারই জানা এটি ভিয়েতনামের একটি উল্লেখযোগ্য পর্যটক স্থান। বিশেষ করে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার চীনা এবং ফরাসি স্থান গুলো বেশি আকর্ষণীয়। যদিও রাস্তাগুলো সবসময় ব্যস্ত থাকে এবং প্রায়ই বিশৃঙ্খল হয়। সেখানে সংস্কৃতির একটি প্রাচুর্য অবস্থান করে এবং সেই সাথে বছরের পর বছর যে স্থান গুলো ঐতিহ্য ধরে রেখেছে তার এক স্বতন্ত্র মিশ্রন খুঁজে পাওয়া যাবে।

৫। প্রাগ, চেক প্রজাতন্ত্র

এই স্থানটি ইউরোপের শহর এবং ইউরোপের অভিযাত্রীদের জন্য এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এখানের লোকজন শহরটিতে দলগত ভাবে ঘুরে বেড়ানো এবং রাতের বেলা বিয়ার পার্টি করে থাকে। ইউরোপের সবচেয়ে রোমান্টিক শহর হচ্ছে চেস্কি ক্রুম্লভ। এখানের প্রতিটি জায়গা অনেক আকর্ষণ করবে আপনাকে।

৬। লন্ডন, যুক্তরাষ্ট্র

image
বিশ্বের মাঝে সবচেয়ে পরিদর্শন শহর হিসাবে খ্যাত এই শহরটি। ২০১৫ সালের সেরা পর্যটকদের স্থান হিসেবে শীর্ষে অবস্থান করছে। লন্ডনে দেখার মতো অনেক জায়গা আছে। লন্ডন এর দর্শনীয় স্থান গুলো দেখতে ভুলবেন না যেন।

৭। রোম, ইতালি

এটি শাশ্বত শহর নামে পরিচিত। ভ্রমণকারীদের কাছে জনপ্রিয় হওয়ার কারনে বিশ্বের সেরা পর্যটক স্থান এর শীর্ষ ১০ এর মধ্যে এটি অবস্থান করছে।

৮। বুয়েনোস আইরেস, আর্জেন্টিনা

এটি আর্জেন্টিনার রাজধানী এবং স্প্যানিশ স্থাপত্যের প্রভাব রয়েছে এই জায়গায় এবং দক্ষিণ আমেরিকার মধ্যে ব্যবসার জন্য এটি একটি আধুনিক শহর। এই জায়গায় অনেক দর্শনীয় স্থান আছে তাই আপনি এটির একটি তালিকা তৈরি করুন যেন কোন কিছু দেখতে ভুলে না যান।

৯। প্যারিস, ফ্রান্স

TourEiffel BleuBlancRouge_(
ফ্রান্সের প্যারিস পর্যটকদের জন্য সেরা স্থান এবং আধুনিক শহর। এখানে গেলে আপনি আধুনিকতার ছোঁয়া পাবেন। ভালোবাসার শহর প্যারিস। ভ্রমণকারীরা এই শহর পছন্দ করে থাকে কারন এখানে গেলে অনেক শপিং করা যায়। বিশ্বের সবচেয়ে উচু টাওয়ার আইফেল টাওয়ার ও এখানে অবস্থিত। আপনার পছন্দের তালিকাই এই স্থানটিও যোগ করতে পারেন। আইফেল টাওয়ারের আছে অনেক পুরোনো ইতিহাস এবং তাই ইতিহাসের সাক্ষী হতে চাইলে আপনাকে এই জায়গা ভ্রমণ করতে হবে। পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্ত থেকে বহু পর্যটক আইফেল টাওয়ারটি দেখতে আসে। দূর থেকে এই টাওয়ার আরও আকর্ষণীয় লাগে।

১০। কেপ টাউন, দক্ষিণ আফ্রিকা

দক্ষিন আমেরিকার কেপ টাউন সমুদ্র ও প্রাকৃতিক দৃশ্যের জন্য বিখ্যাত। কেপ টাউন বিশ্বের সবচেয়ে সুন্দর শহর। এটি স্থানীয় লোকজন এবং নতুন দর্শকদের কারনে সবসময় ভরপুর থাকে। আপনি ইচ্ছে করলে পনি হাইকিং এও ঘুরে আসতে পারেন। এছাড়া আপনি কেপ টাউন এর কাছাকাছি বিখ্যাত টেবিল মাউন্টেন এও ঘুরে আসতে পারেন। এটি অনেক রোমাঞ্চকর জায়গা।

১১। নিউ ইয়র্ক সিটি, নিউ ইয়র্ক

statue of liberty
নিউ ইয়র্ক সিটিকে একটি বড় আপেলের সাথে মিলিয়ে থাকে। রাতের বেলা বের হলে অনেক আলকচিত্র দেখতে পারবেন। দিনের ব্যস্ততা শেষে রাতের বেলা নিউ ইয়র্ক সিটিতে অনেক মানুষের ভিড় হয়। তাই আপনার পছন্দের তালিকার মাঝে নিউ ইয়র্ক সিটির নাম রাখতে ভুলবেন না। মুভির জন্য নিউ ইয়র্ক সিটি সবার কাছে বেশ পরিচিত। এখানে বছরে প্রায় ২০০ মুভি নির্মিত হয়। এছাড়াও স্টাচু অফ লিবার্টি নিউ ইয়র্ক সিটির সবচেয়ে বড় আকর্ষন।

১২। জেরমাট্টে, সুইজারল্যান্ড

আপনি কি স্কিইং ভালবাসেন তাহলে চলে আসুন জেরমাট্টে, সুইজারল্যান্ড এ। সুইজারল্যান্ডের এই পর্বত ইউরোপের সকল দেশের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়।

১৩। বার্সেলোনা, স্পেন

কাতালোনিয়ার রাজধানী এটি। মহান খাদ্য ও চিত্তাকর্ষক স্থাপত্যের রাজধানী। অনেক স্থাপত্য ও দর্শনীয় স্থান এর অধিকারী স্পেনের বার্সেলোনা। সারা বছর জুড়েই এখানে পর্যটকদের ভিড় থাকে।

১৪। গরিমি, তুরস্ক

কাপ্পাদকিয়া এই ছোট্ট শহরে সাগরের উপরে প্যারাসুট এর ফ্লাইট নেয়া তুরস্ক সফররত ভ্রমণকারীদের খুব প্রিয় । আপনিও এই অভিজ্ঞতা অর্জন করতে পারেন।

১৫। উবাদ, ইন্দোনেশিয়া

আদিম ধানক্ষেত, ঘূর্ণায়মান পাহাড় এবং বন্ধুত্বপূর্ণ স্থানীয়দের সম্পর্ক ইত্যাদি কারনে ইন্দোনেশিয়া অনেক বিখ্যাত। এছাড়া হলিউডের শহর উবাদ। অনেক প্রাকৃতিক দৃশ্যের ছোঁয়া পাবেন।

১৬। কোস্কো, পেরু

আপনি এখানে ভ্রমণ করলে ভালো গাইড পাবেন। অনেকে ভালো গাইডের জন্য কোথাও যেতে পারে না। কিন্তু এই শহরটির আকর্ষণীয় স্থানগুলো ঘুরার জন্য ভালো গাইড পাওয়ার কারনে বর্তমানে এই শহর পর্যটকদের কাছে বিখাত।

১৭। সেন্ট পিটার্সবার্গ, রাশিয়া

আপনি রাশিয়ান ফেডারেশন সাবেক রাজধানী সেন্ট পিটার্সবার্গ এর নাম শুনেছেন। এখানে ইতিহাসের অনেক নিদর্শন পাবেন। যা পর্যটকদের কাছে অনেক রোমাঞ্চকর।

১৮। ব্যাংকক, থাইল্যান্ড

bangkok
থাইল্যান্ডের রাজধানী ব্যাংকক। ২০১৫ সালে টুরিস্ট তথ্য থেকে জানা যায় বাংলাদেশ হতে ২০১৫ সালে প্রায় ১ লক্ষ ২০ হাজার পর্যটক ব্যাংকক গিয়েছে। সিয়াম ওশেন পার্ক, ব্যাংকক এর নদীর ওপরের ফ্লোটিং মার্কেট, ড্রীম ওয়ার্ল্ড, ব্যাংকক এর চায়না টাউন, প্রাতুনাম, ব্যাংকক সিটির টেম্পল, পুরনো ঐতিহাসিক স্থান, পুরাতন রাজপ্রাসাদ, ওয়াট ত্রিমিত্র, বেং পা ইন, নং নচ ট্রপিক্যাল গার্ডেন, মিনি সিয়াম, মিলিয়ন ইয়ারস স্টোন পার্ক ইত্যাদি পর্যটক স্থান গুলোতে ঘুরে আসতে পারেন। অনেক কম খরচেই আপনি ব্যাংককে ভ্রমণ করতে পারবেন। এছাড়াও ব্যাংকক এর দ্বীপ পাতায়া বর্তমানে ভ্রমণকারীদের কাছে অনেক জনপ্রিয়। ব্যাংককে আপনি মশলাদার ও অভিজাত খাবার গ্রহণ করার স্বাদ নিতে পারবেন। সিয়াম সেন্টার আপনি এখানে অনেক কম খরচে শপিং করতে পারবেন।

১৯। কাঠমান্ডু, নেপাল

দুঃখের বিষয় যে সাম্প্রতিক ভূমিকম্প এ বিধ্বস্ত নেপালের শহর কাঠমান্ডু। এই শহর দীর্ঘ দুঃসাহসিক ট্রাভেলার্স জন্য অনেক জনপ্রিয় হয়েছে। যদিও এখনও অনেক জায়গায় ভূমিকম্পের ছোঁয়া রয়ে গেছে। বর্তমান ভূমিকম্পের টুকরা গোছগাছ চলছে। তবে এখানে দেখার মতো অনেক জায়গা আছে। বিখ্যাত সব মন্দির এবং পুরনো বিল্ডিং এখনও আছে।

২০। এথেন্স, গ্রীস

এথেন্স সম্পর্কে প্রায় শোনা যায় এটি নোংরা, অসংগঠিত এলাকা এবং পর্যটক বান্ধব নয়। কিন্তু গ্রিক আইসল্যান্ড এর অনেক জায়গা আছে যা ভ্রমণ পিপাসুদের মন কাড়ে।

২১। বুদাপেস্ট, হাঙ্গেরি

বুদাপেস্ট সাধারণভাবে ইউরোপ এর সবচেয়ে আন্ডাররেটেড শহরগুলোর অন্যতম হিসেবে উদাহৃত হয়। কিন্তু আমি বলতে চাই এটি সম্ভবত ইউরোপীয় শহরগুলোতে এখন পাশ্চাত্যে ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। অনেক পথ অতিক্রম করে ভ্রমণকারীরা এখানে যায়।

২২। কুইন্সটাউন, নিউজিল্যান্ড

নিউজিল্যান্ড এর দু:সাহসিক কাজ গুলো ভ্রমণকারীরা এখানে এসে করে। এতে অনেক ঝুঁকি থাকা সত্তেও তারা শখ ও নেশার বসে এই কাজগুলো করে থাকে। জাম্পিং, আকাশ ড্রাইভিং, মাউন্টেন বাইকিং, হাইকিং, এবং কায়াকিং এর জন্য কুইন্সটাউন বিখ্যাত।

২৩। হংকং, চীন

এটি চায়নার মাঝে একটি ব্যস্ততম শহর। আপনি এই শহরে ঘোরার জন্য বেসরকারি গাইড পাবেন। সাধারনত অক্টোবর, নভেম্বর এবং ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে পর্যটক বেশি আসে এখানে।

২৪। দুবাই, সংযুক্ত আরব আমিরাত

dubai
মরুভূমির এই শহর প্রায় রাতারাতি ভ্রমণকারীদের কাছে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। যে কোন আমিরাত সেরা এয়ারলাইন্সে করে আপনি ঘুরে আসতে পারেন। তারা গুরুত্বের সাথে সবচেয়ে আরামদায়ক ইকোনমি ক্লাস এবং খুব সংযত বিজনেস ক্লাসের মাধ্যমে আপনাকে পৌঁছে দেবে।

২৫। সিডনি, অস্ট্রেলিয়া

সিডনি বর্তমানে সবচেয়ে উন্নত শহর। সিডনির হারবার ব্রিজ অস্ট্রেলিয়া এর অন্যতম একটি পর্যটক শহর। সিডনি শহরকে অস্ট্রেলিয়ার পাওয়ার হাউজ নামে আখ্যায়িত করা হয়।

Afrin Mukti

Afrin Mukti

Afrin complete her MBA in marketing, beside this she love music and read lots of books. She also write about online marketing, Bangladesh fashion trend and anything that interested her. She is very dynamic and details oriented.
Afrin Mukti

Comments

লেখাটি পড়ে কেমন লাগলো ?

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY